বৃহস্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ০৯:২৫ অপরাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
প্রতিনিধি আবশ্যক, অনলাইন পত্রিকা আমার সুরমা ডটকমের জন্য প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন : ০১৭১৮-৬৮১২৮১, ০১৬২৫-৬২৭৬৪৩
আওয়ামীলীগ ৪০৩, বিএনপি ৫৯, অন্যান্য ১২১

আওয়ামীলীগ ৪০৩, বিএনপি ৫৯, অন্যান্য ১২১

weআমার সুরমা ডটকম ডেক্সদ্বিতীয় ধাপেও আওয়ামীলীগের জয়জয়কার। ৬৩৯টি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনের মধ্যে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ৫৮৩টির ফলাফলে ৪০৩টিতে জয় পেয়েছে আওয়ামীলীগ প্রার্থীরা। আর বিএনপি প্রার্থীরা জয় পেয়েছে ৫৯টিতে। বিদ্রোহী, স্বতন্ত্র ও জাপা প্রার্থীরা জয়ী হয়েছে ১২১টি ইউপিতে।

মৌলভীবাজারের বড়লেখার উত্তর শাহবাজপুর ইউপিতে আহমদ জুবায়ের লিটন (আওয়ামীলীগ), নিজ বাহাদুরপুর ইউপিতে ময়নুল হক (আওয়ামীলীগ), বর্ণী ইউপিতে এনাম উদ্দিন (আওয়ামীলীগ), তালিমপুর ইউপিতে বিদ্যুৎ কান্তি দাস (আওয়ামীলীগ), দাসের বাজার ইউপিতে কমর উদ্দিন (বিএনপি), বড়লেখা সদর শোয়েব আহমদ (আওয়ামীলীগ), দক্ষিণভাগ উত্তর এনাম উদ্দিন (আওয়ামীলীগ), সুজনাগর নসীব আলী (বিএনপি), দক্ষিণ শাহবাজ পুর সাহাবুদ্দিন (আওয়ামীলীগ-বিদ্রোহী), দক্ষিণভাগে আজির উদ্দিন (আওয়ামীলীগ)। এদিকে জুড়ী উপজেলার জায়ফর নগরে হাজী মাসুম রেজা (বিএনপি), পশ্চিম জুড়ীতে শ্রীকান্ত দাস (আওয়ামীলীগ), পূর্ব জুড়ীতে মো: সালেহ আহমদ (আওয়ামীলীগ), গোয়াল বাড়িতে শাহাবুদ্দিন লেমন (আওয়ামীলীগ),সাগরনালে এমদাদুল ইসলাম চৌধুরী লিয়াকত (বিএনপি)।

যশোর সদর উপজেলার ১৫ ইউপির ফলাফলে ১৩ ইউপিতে আওয়ামীলীগ ও ১টিতে বিএনপি সমর্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থীরা নির্বাচিত হয়েছেন। এছাড় গোলযোগের কারনে ১টি কেন্দ্রের ভোট গ্রহণ স্থগিত রয়েছে। নির্বাচিতরা হচ্ছেন চুড়ামনকাটিতে আব্দুল মান্নান মুন্না (নৌকা), হৈবতপুরে সিরাজুল ইসলাম (নৌকা), নওয়াপাড়া ইউপিতে নাছরিন সুলতানা খুশি, রামনগর ইউপিতে নাজনীন নাহার (নৌকা), উপশহর ইউপিতে এহসানুর রহমান লিটু (নৌকা), বসুন্দিয়া ইউপিতে রিয়াজুল ইসলাম খান রাসেল (নৌকা), ফতেপুর ইউপিতে রবিউল ইসলাম রবি (ধানেরশীষ), ইছালীতে এসএম আফজাল হোসেন (নৌকা), কাশিমপুর ইউপিতে মশিয়ার রহমান সাগর (নৌকা), কচুয়া ইউপিতে লুৎফর রহমান ধাবক (নৌকা) লেবুতলা ইউপিতে আলিমুজ্জামান মিলন (নৌকা), আরবপুর ইউপিতে শাহারুল ইসলাম (নৌকা), দেয়াড়া ইউপিতে আনিচুর রহমান (নৌকা) ও নরেন্দ্রপুর ইউপিতে মোদাচ্ছের আলী (নৌকা)। এছাড়াও গোলাগুলির কারনে চাঁচড়া ইউপিতে দুটি কেন্দ্রের ভোট গ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নবীনগরের ১১টি ইউপির মধ্যে ১০টির ফলাফল পাওয়া গেছে। এরমধ্যে ৯টিতে আওয়ামীলীগ ও ১টিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী জয়ী হয়েছেন। লাউর-ফতেহপুর ইউপিতে আওয়ামীলীগের ফারুক আহমেদ, সাতমোড়া ইউপিতে আওয়ামীলীগের মাসুদ রানা, রসুল্লাবাদ ইউপিতে আওয়ামীলীগের আলী আকবর, ইব্রাহিমপুর ইউপিতে আওয়ামীলীগের মো. আবু মুছা, কাইতলা ইউপিতে আওয়ামীলীগের মো. শওকত আলী, নবীনগর পূর্ব ইউপিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী মৌসুমী আক্তার, বিদ্যাকুট ইউপিতে আওয়ামীলীগের মো. এনামুল হক, বিটঘর ইউপিতে আওয়ামীলীগের আবুল হোসেন, শ্রীরামপুর ইউপিতে আওয়ামীলীগের আজহার হোসেন সরকার জামাল, নাটঘর ইউপিতে আওয়ামীলীগের মো. আবুল কাশেম।

কক্সবাজার পেকুয়া উপজেলার ৭ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগ ৩টি, বিএনপি ২টি, জামায়াত ১টি ও আওয়ামীলীগ-বিদ্রোহী প্রার্থী ১টিতে বেসরকারীভাবে বিজয়ী হয়েছেন। এরমধ্যে পেকুয়া সদরে বিএনপির প্রার্থী বাহাদুর শাহ, বারবাকিয়ায় জামায়াতের স্বতন্ত্র প্রার্থী মাওলানা বদিউল আলম, শিলখালীতে বিএনপি প্রার্থী নুরুল হোসাইন, মগনামায় বিএনপি প্রার্থী শরাফত উল্লাহ ওয়াশিম, টৈইটংয়ে আওয়ামীলীগ প্রার্থী জাহেদুল ইসলাম চৌধুরী, উজানটিয়ায় আওয়ামীলীগ প্রার্থী শহিদুল ইসলাম চৌধুরী, রাজাখালী আওয়ামীলীগ বিদ্রোহী ছৈয়দ নুরকে বিজয়ী হয়েছেন।

কুমিল্লার বরুড়া ও সদর দক্ষিণ উপজেলার ১৪টি ইউনিয়নের মধ্যে ১৩টি ইউপির ফলাফল ঘোষণা করা হয়েছে। এরমধ্যে ৫টি ইউপিতে বিএনপি ও ৮টিতে আওয়ামীলীগ প্রার্থী বেসরকারি ফলাফলে নির্বাচিত হয়েছেন। বরুড়া উপজেলার ৮টি ইউপির মধ্যে আগানগর ইউপিতে বিএনপি মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী ইফতেখার আলম শাহীন, ভবানীপুর ইউপিতে বিএনপির সৈয়দ রেজাউল হক রেজু, লক্ষ্মীপুর ইউপিতে বিএনপির নুরুল ইসলাম, আড্ডা ইউপিতে বিএনপির মো. জাফর উল্লাহ চৌধুরী, আদ্রা ইউপিতে বিএনপির মো. ফজলুল হক, খোশবাস ইউপিতে আওয়ামীলীগের নাজমুল হাছান, পয়ালগাছা ইউপিতে আওয়ামীলীগের সৈয়দ মাহিন, ঝলম ইউপিতে নুরুল ইসলাম নুরুকে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত ঘোষণা করা হয়েছে। এদিকে জেলার সদর দক্ষিণ উপজেলার ৫টি ইউপিতেই আ’লীগের প্রার্থী বেসরকারীভাবে জয়ী হয়েছেন। তারা হলেন চৌয়ারা ইউপিতে আ’লীগের আবুল কালাম আজাদ, বারপাড়া ইউপিতে সেলিম আহাম্মেদ, জোড়কানন পুর্ব ইউপিতে হারিছ মিয়া, জোড়কানন পশ্চিম ইউপিতে হাসমত উল্লাহ, পেরুল দক্ষিণ ইউপিতে সফিকুর রহমান।

উত্তরের সীমান্ত জেলা দিনাজপুরের  ৫টি উপজেলার ৩৫টি ইউপি’র মধ্যে নৌকা প্রতীকে আওয়ামীলীগের ২০ জন, ধানেরশীষ প্রতীকে বিএনপির ৬ জন, বিদ্রোহী ৬ জন ও স্বতন্ত্র ৩ জন চেয়রম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। কাহারোল উপজেলার ডাবর ইউপিতে নৌকা প্রতীকে আওয়ামীলীগের সত্যজিত রায়, রসুলপুর ইউপিতে নৌকা প্রতীকে আওয়ামীলীগের নজরুল ইসলাম, মুকুন্দপুর ইউপিতে নৌকা প্রতীকে আওয়ামীলীগের এ.কে.এম ফারুক, তারগাঁও ইউপিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী সাইফুল ইসলাম, সুন্দরপুর ইউপিতে নৌকা প্রতীকে আওয়ামীলীগের শরিফ উদ্দিন আহমেদ ও রামচন্দ্রপুর ইউপিতে নৌকা প্রতীকে আওয়ামীলীগের আতাউর রহমান বাবুল চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। বোচাগঞ্জ উপজেলার নাফানগর ইউপিতে ধানেরশীষ প্রতীকে বিএনপির শাহনেওয়াজ পারভেজ শহান, ইশানিয়া ইউপিতে নৌকা প্রতীকে আওয়ামীলীগের উৎপল রায় বুলু, মুশিদহাট ইউপিতে নৌকা প্রতীকে আওয়ামীলীগের জাফরউল্লাহ্, আটগাঁও ইউপিতে বিএনপির কফিল উদ্দিন, ছাতইল নৌকা প্রতীকে আওয়ামীলীগের হাবিবুর রহমান হাবু ও রনগাঁও ইউপিতে নৌকা প্রতীকে আওয়ামীলীগের আনিসুর রহমান চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। বিরামপুর উপজেলার মুকুন্দপুর ইউপিতে আওয়ামীলীগ বিদ্রোহী প্রার্থী সাইফুল ইসলাম, কাটলা ইউপিতে ধানেরশীষ প্রতীকে বিএনপির নাজির হোসেন, খাঁনপুর ইউপিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী মোফাজ্জল হোসেন, দিওড় ইউপিতে নৌকা প্রতীকে আওয়ামীলীগের হাফিজুর রহমান, বিনাইল ইউপিতে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী সহিদুল ইসলাম, জোতবানী ইউপিতে ধানেরশীষ প্রতীকে বিএনপির আব্দুর রাজ্জাক ও পলিগ্রয়াগপুর ইউপিনৌকা প্রতীকে আওয়ামীলীগের রহমত আলী চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। ফুলবাড়ী উপজেলার এলুয়ায়াড়ী ইউপিতে ধানেরশীষ প্রতীকৈ বিএনপির নবিউল ইসলাম, আলাদীপুর ইউপিতে নৌকা প্রতীকে আওয়ামীলীগের মোজাফ্ফর হোসেন সরকার, কাজিহাল ইউপিতে নৌকা প্রতীকে আওয়ামীলীগের মানিক রতন, বেতদিঘী ইউপিতে নৌকা প্রতীকে আওয়ামীলীগের শাহ্ আব্দুল কুদ্দুস, খয়েরবাড়ী ইউপিতে নৌকা প্রতীকে আওয়ামীলীগের আবু তাহের মন্ডল, দৌলতপুর ইউপিতে নৌকা প্রতীকে আওয়ামীলীগের আব্দুল মজিদ মন্ডল ও শিবনগর ইউপি মোটর সাইকেল প্রতীকে স্বতন্ত্র প্রার্থী মামুনুর রহমান চৌধূরী চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।
নবাবগঞ্জ উপজেলার জয়পুর ইউপিতে নৌকা প্রতীকে আওয়ামীলীগের আইনুল হত চৌধূরী, বিনোদনগর ইউপিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী মনোয়ার হোসেন, গোলাপগঞ্জ ইউপিতে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী রাশেদুল হক কবীর, শালখুরিয়া ইউপিতে ধানেরশীষ প্রতীকে বিএনপির এনামুল হক, পুটিমারা ইউপিতে নৌকা প্রতীকে আওয়ামীলীগের সারওয়ার হোসেন, ভাদুরিয়া ইউপিতে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী আসমান জামিল, দাউদপুর ইউপিতে নৌকা প্রতীকে আওয়ামীলীগের আব্দুল্লাহ্ হেল আজিম সোহাগ, মাহমুদপুর ইউপিতে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী আব্দুর রহিম বাদশা ও কুশদহ ইউপিতে নৌকা প্রতীকে আওয়ামীলীগের আবু শাহাদাৎ মো. সাইম সবুজ চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।

মানিকগঞ্জের হরিরামপুর ও দৌলতপুর উপজেলার ২০ ইউপিতে চেয়ারম্যান পদে বিএনপির ৬ জন, বিএনপির বিদ্রোহী-২, আওয়ামীলীগ-৫, আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী-৬ জন ও স্বতন্ত্র প্রার্থী ১ জন নির্বাচিত হয়েছেন। হরিরামপুর উপজেলা-হরিরামপুর ১২টি ইউনিয়নের মধ্যে ৫টি ইউপিতে বিএনপি সমর্থীত প্রার্থী চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। এরা হলেন গালা ইউপিতে মো. শফিক বিশ্বাস ( বিএনপি), গোপিনাথপুর ইউপিতে আব্দুল কুদ্দুস (বিএনপি), বলড়া ইউপিতে তারিকুল ইসলাম খান (বিএনপি), বাল্লা ইউপিতে কাজী রেজা (বিএনপি), বয়রা ইউপিতে জাহিদুর রহমান তুষার (বিএনপি), ধুলসুরা ইউপিতে জাহেদ খান (বিএনপির বিদ্রোহী), কাষ্ণনপুর ইউপিতে মো. ইউনুস গাজী (আওয়ামীলীগ), রামষ্ণপুর ইউপিতে কামাল হোসেন (আওয়ামীলীগ), সুতালড়ি ইউপিতে আব্দুস সালাম (আওয়ামীলীগ), আজিমনগর ইউপিতে বিল্লাল হোসেন (আওয়ামীলীগ), হারুকান্দি ইউপিতে আসাদুজ্জামান চুন্নু (আওয়ামীলীগের-বিদ্রোহী), চালা ইউপিতে শামসুল আলম শিরু (আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী), দৌলতুপুর উপজেলায় ৮ ইউপিতে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী ৪, বিএনপি মনোনিত ১, বিএনপির বিদ্রোহী ১, আওয়ামীলীগ মনোনিত ১ জন ও স্বতন্ত্র ১ জন নির্বাচিত হয়েছেন। নির্বাচিতরা হলেন চকমিরপুর ইউপিতে শফিকুল ইসলাম (আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী), বাচামরা আব্দুল লতিফ (আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী), চরকাটারী ইউপিতে আব্দুল বারেক (আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী), বাঘুটিয়া ইউপিতে তোফাজ্জল হোসেন (আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী), খলশি ইউপিতে শাখাওয়াত জাহাঙ্গীর সেনা (বিএনপি), ধারশ্বর ইউপিতে সাদিকুর রহমান তুলা (বিএনপির বিদ্রোহী), জিয়ানপুর ইউপিতে বেলায়েত হোসেন (আওয়ামীলীগ) ও কলিয়া ইউপিতে জাকির হোসেন (স্বতন্ত্র)।
পাবনা জেলার ফরিদপুর উপজেলার ৬ ও ভাঙ্গুড়া উপজেলার ৪ ইউপিতে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ফরিদপুর উপজেলার ফরিদপুর ইউপিতে সরোয়ার হোসেন (আওয়ামীলীগ), ডেমরা ইউপিতে মাহফুজুর রহমান (আওয়ামীলীগ), বনওয়ারীনগর ইউপিতে জিয়াউর রহমান (বিএনপি), পুঙ্গলী ইউপিতে আমিনুর রহমান সরকার (আওয়ামীলীগ), বিএলবাড়ি ইউপিতে জাহাঙ্গীর আলম মল্লিক (বিএনপি), হাদল ইউপিতে সেলিম রেজা (আওয়ামীলীগ)। ভাঙ্গুড়া উপজেলায় খানমরিচ ইউপিতে আসাদুর রহমান (আওয়ামীলীগ), পারভাঙ্গুড়া ইউপিতে হেদায়েত উল্লাহ (আওয়ামীলীগ), দিলপাশার ইউপিতে অশোক কুমার ঘোষ (আওয়ামীলীগ) ও অষ্টমনিষা ইউপিতে মো. আয়নুল হক (বিএনপি)।

কুড়িগ্রাম জেলার ভুরুঙ্গামারী উপজেলার ৭টি ও চিলমারী উপজেলার ৬টি মোট ১৩টি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থীর ফলাফল বেসরকারি ভাবে ঘোষনা করা হয়। এতে ৬টি ইউপিতে আওয়ামীলীগের বিজয়ীরা হলেন জালাল উদ্দিন, আবু তালেব ফকির, আজগর আলী, মঞ্জুরুল ইসলাম মজনু, আব্দুর রাজ্জাক মিলন, গয়ছল হক মন্ডল। আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী বিজয়ী প্রার্থী হলেন রাজু আহমেদ খোকন। বিএনপির বিজয়ী ৩ প্রার্থী হলেন ফরিদুল হক শাহিন, মোখলেছুর রহমান ও আবু হানিফা ও জাতীয়পার্টির বিজয়ী ৩ প্রার্থী হলেন-এটিএম ফজলুল হক, ডাঃ শাহাজাহান আলী মোল্লা ও আব্দুর রাজ্জাক।
মাগুরা সদরে ১২টি ইউপিতে ১১টি ইউপিতে আওয়ামীলীগ ও ১টিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। বিজয়ীদের মধ্যে আওয়ামীলীগের ১১ জন নির্বাচিত চেয়ারম্যান হচ্ছেন বেরইল পলিতায় খান্দকার মহব্বত আলী, বগিয়া ইউপিতে মীর রওনক হোসেন, জগদলে সৈয়দ রফিকুল ইসলাম, কছুন্দীতে আবুল কাশেম মোল্যা, শক্রজিতপুরে এড. সঞ্জিত বিশ্বাস, চাউলিয়ায় হাফিজার রহমান মোল্যা, মঘিতে আব্দুল হাই সরদার, রাঘবদাইড়ে আশরাফুল আলম বাবুল ফকির, হাজরাপুরে কবির হোসেন ও হাজিপুরে মোজাহারুল হক আখরোট। গোপাল গ্রাম ইউনিয়ন থেকে একমাত্র স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসাবে বিজয়ী হয়েছেন নাজমুল হাসান রাজিব।

বোদা উপজেলায় অনুষ্ঠিত ৬ ইউনিয়নের নির্বাচনের বিজয়ী চেয়ারম্যান প্রার্থীদের মধ্যে ঝলই শালশিরি ইউপিতে আওয়ামীলীগের প্রার্থী আবুল হোসেন, বেংহারী বনগ্রাম ইউপিতে আওয়ামীলীগের প্রার্থী আবুল কালাম আজাদ আবু, সাকোয়া ইউপিতে আওয়ামীলীগের প্রার্থী জাহাঙ্গীর হাসান সবুজ, চন্দনবাড়ী ইউপিতে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুল, বোদা সদরে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী স্বতন্ত্র প্রার্থী দেলোয়ার হোসেন প্রধান, পাঁচপীর ইউপিতে আওয়ামলীগের বিদ্রোহী স্বতন্ত্র প্রার্থী হুমায়ুন কবির প্রধান নির্বাচিত হয়েছেন।

মাদারীপুরে সদর উপজেলার ১৫ ইউপিতে আওয়ামীলীগের ৮, আওয়ামীলীগ বিদ্রোহী ৫ ও ১ জন স্বতন্ত্র প্রার্থী নির্বাচিত হয়েছেন। বাহাদুরপুর ইউপিতে আওয়ামীলীগ প্রার্থী সৈয়দ সাখাওয়াত হোসেন সেলিম, কালিকাপুর ইউপিতে এজাজুর রহমান আকন, ঝাউদি ইউপিতে সিরাজুল ইসলাম আবুল, খোয়াজপুরে মো. আলি মুধা, মোস্তফাপুরে কুদ্দুস মল্লিক, শিরখাড়ায় মজিবুর রহমান, দুধখালি ইউপিতে মিজানুর রহমান হিরু খান, পেয়ারপুরে মজিবুর রহমান খান ও আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী নির্বাচিত হয়েছেন ছিলারচরে সাইফুল ইসলাম বাবুল সরদার, ধুরাইলে মজিবর মৃধা, কেন্দ্রয়া ইউপিতে মজিবর মাতুব্বর, কুনিয়ায় অমিত কবির, পাঁচখোলায় নজরুল ইসলাম আক্তার হাওলাদার ও স্বতন্ত্র প্রাথী হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন। রাস্তি ইউপিতে নির্বাচিত হয়েছেন মনিরুজ্জামান মনির হাওলাদার।

নীলফামারী সদর উপজেলার ৫টি ইউনিয়ন পরিষদের ১টিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী ও অপর ৪টিতে আওয়ামীলীগ প্রার্থী চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। এরমধ্যে গোড়গ্রাম ইউপিতে নৌকা প্রতিকের রেয়াজুল ইসলাম, চওড়াবড়গাছা ইউপিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী মোশাররফ হোসেন, পঞ্চপুকুর ইউপিতে নৌকা প্রতিকের হবিবর রহমান হবি, লক্ষীচাপ ইউপিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান আমিনুর রহমান, পলাশবাড়ী ইউপিতে নৌকা প্রতিকের মমতাজ উদ্দিন আহমেদ বেসরকারীভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।

মেহেরপুরের মুজিবনগর উপজেলার ৪টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগ মনোনীত ২ জন ও আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী ২ জন প্রার্থী জয় লাভ করেছেন। আওয়ামীলীগ মনোনীত নির্বাচিতরা হলেন বাগোয়ান ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আয়ূব হোসেন ও মহাজনপুর ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান ও মুজিবনগর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আমাম হোসেন মিলু। এছাড়া মোনাখালী ইউপিতে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী যুবলীগ কর্মী মফিজুর রহমান ও দারিয়াপুর ইউপিতে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী উপজেলা যুবলীগের সাবেক সহ-সভাপতি তৌফিকুল বারী বকুল পাল নির্বাচিত হয়েছেন।

সীতাকুন্ডের ৯টি ইউনিয়নের মধ্যে সবকটি ইউপিতে নৌকা প্রতীকে আওয়ামীলীগ প্রার্থীরা বেসরকারীভাবে বিজয়ী হয়েছে। সন্ধায় উপজেলা কার্যালয়ে সংশ্লিষ্ট নির্বাচন কর্মকর্তারা তাদের প্রাপ্ত ফলাফল ঘোষণা করেন।  বিজয়ীরা হলেন ১নং সৈয়দপুর ইউপিতে এইচ.এম তাজুল ইসলাম নিজামী, ২নং বারৈয়ারঢালা ইউপিতে হাজী রেহান উদ্দিন রেহান, ৪নং মুরাদপুর ইউপিতে জাহেদ হোসেন নিজামী, ৫নং বাড়বকু- ইউপিতে সাদাকাত উল্লাহ মিয়াজী, ৬নং বাঁশবাড়িয়া ইউপিতে সওকত আলী জাহাঙ্গীর, ৭নং কুমিরা ইউপিতে মোরশেদুল আলম চৌধুরী, ৮নং সোনাইছড়ি ইউপিতে মুনির আহমেদ, ৯নং ভাটিয়ারী ইউপিতে নাজিম উদ্দিন ও ১০নং সলিমপুর ইউপিতে সালাউদ্দিন আজিজ।

কিশোরগঞ্জের বাজিতপুর উপজেলায় ইউপি নির্বাচনে আওয়ামীলীগ ৭, বিএনপি ৩ ও সতন্ত্র আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী ১ জন প্রার্থী নির্বাচিত হয়েছেন। তাদের মধ্যে আওয়ামীলীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকে হলেন দিঘীরপাড় আমিন মোহাম্মদ ফারুক, গাজিরচর মো. জুয়েল মিয়া, হিলচিয়া মাজহারুল ইসলাম নাহিদ, পিরিজপুর মোঃ জাফর ইকবাল জুয়েল, মাইজচর মোঃ তৈয়বুর রহমান, দিলালপুর গোলাম কিবরিয়া নভেল, কৈলাগ গোলাম কিবরিয়া স্বাধীন; বিএনপি মনোনীত ধানেরশীষ প্রতীকে হলেন হালিমপুর মোঃ কাজল ভূইয়া, হুমায়ুনপুর মোঃ মানিকুজ্জামান, সরারচর মোঃ মহসিন মিয়া ও সতন্ত্র হলেন বলিয়ারদী মোঃ সফি মিয়া (আওয়ামীলীগ বিদ্রোহী)।

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে ১৪ ইউপিতে আওয়ামীলীগে ১৪ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী বিজয়ী হয়েছেন। বিজয়ীরা হলেন প্রাগপুর ইউপিতে আশরাফুজ্জামান মুকুল মাষ্টার, মথুরাপুর ইউপিতে সরদার হাসিম উদ্দিন হাসু, রামকৃষ্ণপুর ইউপিতে সিরাজ মন্ডল, ফিলিপনগর ইউপিতে একেএম ফজলুল হক ওরফে ফজু কবিরাজ, চিলমারী ইউপিতে সৈয়দ আহমেদ, মরিচা ইউপিতে শাহ আলমগীর, হোগলবাড়িয়া ইউপিতে সেলিম চৌধুরী, পিয়ারপুর ইউপিতে আবু ইউসুফ লালু, রিফায়েতপুর ইউনিয়নে, জামিরুল ইসলাম বাবু, দৌলতপুর ইউপিতে মহিউল ইসলাম মহি, বোয়ালিয়া ইউপিতে মহিউদ্দিন বিশ্বাস, আদাবাড়িয়া ইউপিতে মকবুল হোসেন, খলিশাকুন্ডি ইউপিতে সিরাজুল ইসলাম ও আড়িয়া ইউপিতে সাইদ আনছারী বিপ্লব।

কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী উপজেলার ৯টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের ৫টি, আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী ১টি, বিএনপি ১টি, বিএনপি বিদ্রোহী ২টিতে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। বনগ্রাম ইউপিতে কামাল হোসেন মিলন (আওয়ামীলীগ), সহশ্রাম ধূলদিয়ায় আবুল কাসেম আকন্দ (আওয়ামীলীগ) মুমুরদিয়ায় সৈয়দুজ্জামান (আওয়ামীলীগ), মসূয়ায় ইদ্রিছ আলী (আওয়ামীলীগ), লোহাজুরীতে আতাহার উদ্দিন ভূঞা রতন (আওয়ামীলীগ) জালালপুরে হাবিবুর রহমান রুস্তম (আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী), আচমিতায় মাহাবুবুর রহমান বাচ্চু (বিএনপি) করগাঁও শরাফত লস্কর পারভেজ (বিএনপি বিদ্রোহী), চান্দপুর মাহতাব উদ্দিন (বিএনপি বিদ্রোহী)।

নির্বাচনে কালীগঞ্জ উপজেলার সাতটি ইউনিয়নের ৬টিতে আওয়ামীলীগ সমর্থিত ও ১টিতে বিদ্রোহী প্রার্থী নির্বাচিত হয়েছেন। আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী তুমলিয়া ইউপিতে বর্তমান চেয়ারম্যান আবু বক্কর বাক্কু, বক্তারপুরে ইউপিতে বর্তমান চেয়ারম্যান আতিকুর রহমান ফারুক, মোক্তারপুর ইউপিতে বর্তমান চেয়ারম্যান শরীফুল ইসলাম তোরণ, বাহাদুরশাদী ইউপিতে সাবেক চেয়ারম্যান শাহাবুদ্দিন আহমেদ, জামালপুর ইউপিতে মাহবুবুর রহমান খান (ফারুক মাষ্টার), জাঙ্গালীয়া ইউপিতে গাজী সারোয়ার হোসেন ও আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী আব্দুল কাদির মিয়া নাগরী ইউপিতে বেসরকারীভাবে বিজয়ী হয়েছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2017-2019 AmarSurma.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: