শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৯:৫৫ অপরাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
প্রতিনিধি আবশ্যক, অনলাইন পত্রিকা আমার সুরমা ডটকমের জন্য প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন : ০১৭১৮-৬৮১২৮১, ০১৬২৫-৬২৭৬৪৩
এবার ফসলহানির প্রভাব লেগেছে ব্যবসায়, দক্ষিণ সুনামগঞ্জে ব্যবসায়ীদের মাথায় হাত!

এবার ফসলহানির প্রভাব লেগেছে ব্যবসায়, দক্ষিণ সুনামগঞ্জে ব্যবসায়ীদের মাথায় হাত!

দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থেকে সামিউল কবির: হাওর পাড়ে যেখানে কৃষকদের সুখে শান্তিতে দিন কাটানোর কথা, ফসলহানির পর মানুষের মনে আজ দীর্ঘশ্বাস হাহাকার.. চোখে মুখে কষ্টের আকুতি আর বেঁচে থাকার আর্তনাদ! সরকারী সহযোগীতার কথা শুনে কিছু মানুষের মনে বাঁচার আশা সঞ্চার হলেও সবার নয়! যার মধ্যে মধ্যবিত্ত শ্রেনী পড়েছেন সবচেয়ে বড় বেকাদায়, উচ্চবিত্তরা হয়তো যাদের কেউ কেউ বিদেশ অবস্থান করছেন বিধায় তাদের এই বিপদ কিছুটা কাটিয়ে উঠা সম্বব! কিন্তু যাদের ঘরে বিদেশী নেই সরকারী চাকুরীজীবী নেই, যাহারা কৃষি ও ব্যবসার উপর নির্ভরশীল ছিলেন সেই প্রথমটি কৃষি হারিয়ে তাহারা মনে করেছিলেন আদরে গড়া নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান চালিয়ে অন্তত এই বছরটি কোনোভাবে কাটিয়ে দিতে পারবেন। কিন্তু বিধিবাম আজ তাদের মাথায় হাত! সরেজমিনে গিয়ে দক্ষিণ সুনামগঞ্জের শান্তিগঞ্জ বাজারের বিশিষ্ট বস্ত্র ব্যবসায়ী সেবুল মিয়া বলেন দোকানে ১৪/১৫ লক্ষ টাকার মাল আছে কিন্তু বেচা বিকি খুবিই মান্দা, প্রতিদিন গড় বিক্রি তিনশো থেকে চারশো টাকা, যা নিজে চলা সংসার চালানো খুব কষ্টকর বা দোকানদারিই কেমনে করবো? রেজিয়া ফ্যাশন এর মালিক আব্দুল হক ও কাশফুল শাড়ি সেন্টার এর মালিক আব্দুল কাদিরও একই কথা জানান, ফুটপাতের চা বিক্রতা রমা বাবু বলেন.. কেমনে বাঁচুম? আগে সারাদিন চা-বিক্রি করে দুইশো আয় করতাম আর এখন উল্টো দুশো টাকা ভূর্তুকি দিতে হয় তিনি, আরও বলেন এভাবে কয়দিন চলমু উপরওয়ালাই ভালো জানেন, নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অারও কিছু ব্যবসায়ী জানান ব্যবসায় মান্দার কারনে তাদের ব্যবসা ছাড়ার উপক্রম! ব্যবসায়ী খালেদ হাসানের কাছে জানতে চাওয়া হয় যে, এই মান্দা ভাব কি শুধুই ফসলহানির জন্য? তিনি বলেন হ্যা, কারন আমাদের বোরো ফসলেই এখানকার অর্থনীতির একমাত্র চাবিকাঠি, যা পুরো সুনামগঞ্জেই আপনি একেই চিত্র দেখতে পাবেন, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মাজহারুল ইসলাম মইনুল বলেন আমরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কথার দ্রুত বাস্তবায়ন চাই। এদিকে আমাদের উপজেলার বড় তিন বাজার পাগলা, পাথারিয়া, নোয়াখালীর অনেক ব্যবসায়ীও একই অভিমত ব্যক্ত করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2017-2019 AmarSurma.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: