শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৮:৩৭ পূর্বাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
প্রতিনিধি আবশ্যক, অনলাইন পত্রিকা আমার সুরমা ডটকমের জন্য প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন : ০১৭১৮-৬৮১২৮১, ০১৬২৫-৬২৭৬৪৩
কানাইঘাটে দু’পক্ষের মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে আহত অর্ধশতাধিক

কানাইঘাটে দু’পক্ষের মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে আহত অর্ধশতাধিক

কানাইঘাট প্রতিনিধি: সিলেটের কানাইঘাট ঝিঙ্গাবাড়ী ইউপির নারাইনপুর আগফৌদ পূর্ব জামে মসজিদে গ্রামের দু’পক্ষের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষে অন্তত অর্ধশতাধিক লোকজন আহত হয়েছেন। এ নিয়ে এলাকায় দু’টি পক্ষের মধ্যে তীব্র উত্তেজনা বিরাজ করছে। এ ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার রাত ১০টার দিকে। জানা যায়, নারাইনপুর আগফৌদ গ্রামে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে স্থানীয় ইউপি সদস্য শরিফ উদ্দিন, আজিজুর রহমান গংদের মধ্যে অর্থনৈতিক কর্মকান্ড নিয়ে উত্তেজনা চলে আসছিল। এ নিয়ে পূর্বে কয়েকবার উভয় পক্ষের মধ্যে মামলা মোকদ্দমা সহ পাল্টাপাল্টি হামলার ঘটনা ঘটে। গ্রামের এজমালী সম্পত্তির টাকা লেনদেন নিয়ে গত শুক্রবার রাত ১০টার দিকে গ্রামের পূর্ব জামে মসজিদে আজিজুর রহমান গং ও ইউপি সদস্য শরিফ উদ্দিন গংরা জড়ো হন। একপর্যায়ে ইউপি সদস্য শরিফ উদ্দিনের পক্ষের লোকজন আজিজুর রহমান গংদের উপর দেশীয় ধারালো অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে অতর্কিত হামলা চালালে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়, প্রায় ঘন্টা খানেক সংঘর্ষে একে অপরকে লক্ষ্য করে ব্যাপক ইট-পাটকেল নিক্ষেপ ও ধারালো অস্ত্র শস্ত্র নিয়ে হামলায় জড়িয়ে পড়ে। হামলার সময় মসজিদের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি সাধিত হয়। ঘন্টাখানেক সংঘর্ষ চলাকালে উভয় পক্ষের অন্তত অর্ধশতাধিক আহত হন। গুরুতর আহত অবস্থায় উভয় পক্ষের আব্দুর রহিম, নিজাম উদ্দিন, মাষ্টার আব্দুল মালিক, আজিজুর রহমান, হুসন আহমদ, আমিন উদ্দিন ও শরীফ গ্রুপের সাহেদ আহমদ, শফিকুল হক, শাদউল্লাহ, নুরুল ইসলাম,আব্দুল কুদ্দুস, আব্দুল্লাহ, নজরুল ইসলাম, আশিক উদ্দিনকে সিলেট ওসমানী হাসপালে ভর্তি করা হয়েছে। অন্যান্য আহতদের বিভিন্ন স্থানীয় ফার্মেসীতে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। সংঘর্ষের খবর পেয়ে কানাইঘাট থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের সহযোগিতায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনেন। এ ঘটনার পর থেকে নারাইনপুর আগফৌদ ও স্থানীয় গাছবাড়ী এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি পুলিশের নিয়ন্ত্রনে রয়েছে বলে জানিয়েছেন থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল আহাদ জানিয়েছেন। সংঘর্ষের ঘটনা নিয়ে পরস্পর বিরোধী খবর পাওয়া গেছে। ইউপি সদস্য শরীফ উদ্দিন জানান, গ্রামের উন্নয়নমূলক তহবিলে প্রায় অর্ধকোটি টাকা রয়েছে। এ টাকার হিসাব চাইতে গেলে আজিজুর রহমান, সাবেক ইউপি সদস্য ইয়াহিয়া, আজই মেম্বার, আব্দুল মালিকসহ তাদের গ্রুপের লোকজন ক্ষিপ্ত হয়ে হামলা চালিয়ে তাদের আহত করে। এদিকে সাবেক ইউপি সদস্য ইয়াহিয়া জানান গ্রামের উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডের শান্তিপুর্ণ বৈঠক চলাকালে ইউপি সদস্য শরীফ উদ্দিনের নেতৃত্বে তার লোকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে মসজিদের বারান্দায় বৈঠক চলাকালে অতর্কিত হামলা চালালে এ সংঘর্ষ বাঁধে।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2017-2019 AmarSurma.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: