বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ১০:৫২ অপরাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
প্রতিনিধি আবশ্যক, অনলাইন পত্রিকা আমার সুরমা ডটকমের জন্য প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন : ০১৭১৮-৬৮১২৮১, ০১৬২৫-৬২৭৬৪৩
ছাতকে অব্যাহত নির্যাতন থেকে মুক্তির দাবি এক কলেজ ছাত্রীর

ছাতকে অব্যাহত নির্যাতন থেকে মুক্তির দাবি এক কলেজ ছাত্রীর

চান মিয়া, বিশেষ প্রতিবেদক (সুনামগঞ্জ): ছাতকে মাতাপিতাসহ পরিবারের সদস্যদের অমানবিক নির্যাতন-নিপীড়নে অতিষ্ট হয়ে অষ্টাদশী এক মেধাবী কলেজ ছাত্রী সিলেট ডিআইজি বরাবরে সাহায্যের আবেদন করেছে। নিজের স্বামী ত্যাগ করে মাতাপিতার পছন্দের স্বামী গ্রহণ না করায় তার উপর এ অত্যাচার নির্যাতন চালানো হচ্ছে বলে দাবি করা হয়। সে ছাতকের কালারুকা ইউনিয়নের করছখালী গ্রামের আব্দুল আহাদের ছেলে লালা মিয়া মেয়ে। লিখিত আবেদনে বলা হয়, সিলেট কমার্স কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্রী ফারহিন আক্তার উর্র্মির (১৯) স্বামী সেবুল আহমদকে ত্যাগ করে পিতামাতার পছন্দের ব্যক্তিকে স্বামী হিসেবে গ্রহণ না করায় তার উপর দীর্ঘদিন থেকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন চালানো হচ্ছে। এরমধ্যে একাধিকবার তাদের পছন্দের ব্যক্তির কাছে জোরপূর্বক বিয়ে দেয়ার অপচেষ্টা চালানো হয়। কিন্তু তাদের এসব অন্যায়ের বিরুদ্ধে সে তীব্র প্রতিবাদি হয়ে উঠে। সে পরিবারের লোকজনের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ ঘোষণা করে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হয় যে, সে কখনোই তার স্বামী সেবুলকে ত্যাগ করে পিতামাতার পছন্দের ব্যক্তিকে বিয়ে করবেনা। একারণেই কলেজের দ্বাদশ শ্রেণীর মেধাবী ছাত্রী উর্র্মির এখন লেখাপড়া বন্ধের উপক্রম। নিজের লেখাপড়া অব্যাহত রাখাসহ নির্যাতন-নিপীড়ন থেকে রেহাই পেতে সে ডিআইজি বরাবরে এ আবেদন করে। জানা গেছে, গত ১৬ ফেব্র“য়ারি কলেজ ছাত্রী উর্মির সাথে একই গ্রামের ছিদ্দেক আলীর ছেলে সেবুল আহমদের বিয়ে হয়। বিয়ের পর মাতাপিতাসহ পরিবারের লোকজন এ বিয়ে মেনে নিতে রাজি হয়নি। পরে গোপনে স্বামী সেবুলসহ তাদের আত্মীয়-স্বজনদের উপর সিলেট কোতোয়ালী মডেল থানায় একটি হয়রানীমূলক মামলা (নং-৩০, তাং-২১/০২/২০১৭ ইং) দায়ের করেন। এ মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের জন্যে ডিআইজি মহোদয় বরাবরে মানবিক সাহায্যের এ লিখিত আবেদন করেছে স্কুল ছাত্রী।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2017-2019 AmarSurma.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: