শুক্রবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ০১:১৪ পূর্বাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
প্রতিনিধি আবশ্যক, অনলাইন পত্রিকা আমার সুরমা ডটকমের জন্য প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন : ০১৭১৮-৬৮১২৮১, ০১৬২৫-৬২৭৬৪৩
নিখোঁজের ৪ দিন পর কুড়িগ্রামে স্কুলছাত্রের লাশ উদ্ধার: ‘মা’সহ বন্ধু আটক

নিখোঁজের ৪ দিন পর কুড়িগ্রামে স্কুলছাত্রের লাশ উদ্ধার: ‘মা’সহ বন্ধু আটক

file[pooআমার সুরমা ডটকম : কুড়িগ্রাম শহরের ব্যবসায়ী সুলতান আহম্মেদের একমাত্র পুত্র আলিফ আহম্মেদ স্বপ্ন (১৪) নিখোঁজ হওয়ার ৪ দিন পর ল্যাট্রিনের সেফটি ট্যাংক থেকে তার গলিত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় কুড়িগ্রাম শহরের ভেলাকোপা এলাকার হানাগর পাড়ার সিনিয়র নার্স মোর্শেদা বেগমের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে মোর্সেদা বেগম ও তার পুত্র রিফাতকে পুলিশ আটক করে। এ ঘটনা জানাজানি হলে হাজার হাজার মানুষ ভিড় করে রহস্য ঘেরা ওই বাড়িটিতে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশকে হিমশিম খেতে হয়। এদিকে লাশ উদ্ধার করার খবরে স্বপের পরিবারে শোকের মাতম শুরু হয়। গোটা সরদার পাড়ায় নেমে আসে শোকের ছায়া। কুড়িগ্রাম সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মুর্শেদুল করিম মোহাম্মদ এতেশাম জানান, কুড়িগ্রাম শহরের সরদার পাড়ার খাদ্য ব্যবসায়ী সুলতান আহম্মেদের ২ মেয়ে ও এক ছেলে। গত সোমবার (২১/১২/১৫) সকাল ১০টার দিকে আলিফ আহম্মেদ স্বপ্ন তার মা ফরিদা ইয়াসমিনকে টেবিলে নাস্তা দিতে বলে তিন তলা ফ্লাট থেকে নীচে নামে। বন্ধু রিফাতের সাথে দেখা করার কথা বলে সে বের হয়। এরপর তার আর ফেরা হয়নি। এরপর থেকে সে নিখোঁজ। তার ব্যবহৃত মোবাইল ০১৭৩১২০৭৬৯৩ বন্ধ পাওয়া যায়। সারাদিন খোঁজা খুঁজির পর পরিবারের পক্ষ থেকে মঙ্গলবার কুড়িগ্রাম সদর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করা হয়। নিখোঁজ ঘটনার পর থেকে রিফাতের মা মোর্শেদা বেগম রিফাতের সাথে কাউকে কথা বলতে দিচ্ছিল না। পুলিশের সন্দেহ হলে মা ও ছেলেকে বুধবার রাতে থানায় এনে জিজ্ঞাসাবাদ করে ছেড়ে দেয়। বৃহস্পতিবার সকালে রিফাত আত্মগোপন করে। আর মোর্শেদা বেগম ফোন বন্ধ রাখে। বিকালে পুলিশ অভিযান চালিয়ে মোর্শেদা বেগম ও পুত্র রিফাতকে আটক করে। জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে স্বপ্নকে খুনের ঘটনা স্বীকার করে তারা। তাদের দেয়া তথ্যের সূত্রধরে তাদের বাসার ল্যাট্রিনের সেফটি ট্যাংক ভেঙ্গে স্বপ্নের গলিত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। পুলিশ সুপার মোহাম্মদ তবারক উল্লাহ, সহকারী পুলিশ সুপার মাসুদ আলম ও ইউএনও আমিনুল ইসলাম ঘটনাস্থলে উপস্থিত থেকে লাশ উদ্ধার এবং পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2017-2019 AmarSurma.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: