বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১১:৪০ অপরাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
প্রতিনিধি আবশ্যক, অনলাইন পত্রিকা আমার সুরমা ডটকমের জন্য প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন : ০১৭১৮-৬৮১২৮১, ০১৬২৫-৬২৭৬৪৩
সংবাদ শিরোনাম :
এইচএসসির ফল প্রকাশ, পাসের হার ৮৫.৯৫ শতাংশ নিহতের সংখ্যা ৫০০০ ছাড়ালো, তিন মাসের জরুরি অবস্থা জারি তুরস্কে রাজাকার ও বিএনপির লোকদের নিয়ে সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের শোকর‌্যালি পাকিস্তানের সাবেক সামরিক শাসক পারভেজ মোশাররফের মৃত্যু চট্টগ্রাম কলেজের ১৭৫ শিক্ষার্থী ৩ ঘন্টার অভিযানে ডুবোচর থেকে উদ্ধার ফরিদপুরে একই পরিবারে ৫ সদস্যের ইসলাম ধর্ম গ্রহণ কে হচ্ছেন রাষ্ট্রপতি জানা যাবে মঙ্গলবার বিশ্ব হাত গুটিয়ে বসে থাকলে আরেকটি রোহিঙ্গা গণহত্যা হবে: জাতিসঙ্ঘ ১০ দফা আদায়ে ব্যর্থ হলে বাংলাদেশ ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত হবে: মির্জা ফখরুল বহিষ্কৃত নেতার সমাবেশে জেলা সভাপতি: উজ্জীবিত নেতাকর্মীরা
প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যে ক্ষুব্ধ সুলতান মনসুর

প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যে ক্ষুব্ধ সুলতান মনসুর

112037_r-2_113624আমার সুরমা ডটকম : সিলেটের আলীয়া মাদ্রাসা মাঠে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেয়া বক্তব্য নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন আওয়ামীলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক সিলেটের বিশিষ্ট রাজনীতিক সুলতান মোহাম্মদ মনসুর। বৃহস্পতিবার রাতে ফেসবুকে দেয়া এক স্ট্যাটাসে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের প্রতিক্রিয়া জানান আওয়ামীলীগের এই প্রবীন নেতা।
স্ট্যাটাসে তিনি বলেন, ‘সিলেটের ঐতিহাসিক আলিয়া মাঠে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দীর্ঘ বক্তব্যে বাঙালির মুক্তি আন্দোলন, দলগঠন ও মুক্তিযুদ্ধে বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে পুণ্যভূমি সিলেটের সন্তান হিসেবে যারা ভূমিকা রেখেছিলেন তাদের মধ্যে অন্যতম মুক্তি বাহিনীর সর্বাধিনায়ক জেনারেল আতাউল গনী ওসমানী, উপপ্রধান জেনারেল এমএ রব, সাবেক স্পিকার হুমায়ূন রশিদ চৌধুরী, সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুস সামাদ আজাদ, সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এমএস কিবরিয়া, সিলেট অঞ্চলে আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রাণপুরুষ দেওয়ান ফরিদ গাজীসহ জাতীয় নেতৃত্ব ও ব্যক্তিত্বের নাম উল্লেখ না করায় গভীর ক্ষোভ প্রকাশ করছি। এমনকি একজন সরকার প্রধান হিসাবে বৃহত্তর সিলেটের উন্নয়নের অন্যতম রূপকার এম. সাইফুর রহমানের নাম উল্লেখ করলে কোন বিশেষ ক্ষতি হয়ে যেতোনা।
বলাবাহুল্য মাদরাসা মাঠ থেকে জাতীয় নেতৃত্ব হিসাবে আওয়ামীলীগের মঞ্চ থেকে যাদেরকে দিয়ে বক্তব্য দেওয়ানো হয়েছে যথাক্রমে এমএ মুহিত, বাবু সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত, নুরুল ইসলাম নাহিদ, ও আব্দুল মান্নান, এরা কেউই ৯০ সালের আগে আওয়ামীলীগ করেন নি। এদের সবাই ৯০ সালের স্বৈরাচার পতনের আগ পর্যন্ত আওয়ামীলীগ ও বঙ্গবন্ধুর বিরুদ্ধে অপপ্রচারে ভুমিকা রেখেছেন এবং ৭৫ পরবর্তী বিভিন্ন সরকারের আমলে সুবিধা নিয়েছেন। পরবর্তীতে ৪-৫ দল পাল্টিয়ে আওয়ামীলীগের বিজয় লগ্নে আওয়ামীলীগে যোগদানের মাধ্যমে আজকের ভোটারবিহীন সরকারের সুবিধা ভোগ করছেন। তিনি আরও বলেন, সত্যিকার আওয়ামীলীগ নেতাকর্মী ও পুণ্যভূমির সর্বস্তরের জনগণকে আগামী দিনে সকলের অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনে সুবিধাবাদিদের বিরুদ্ধে সজাগ ও ঐক্যব্ধ হওয়ার আহবান জানাই। জয় বাংলা… জয় বঙ্গবন্ধু… জয় হউক বাংলার জনগণের’।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2017-2019 AmarSurma.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: