বৃহস্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ০৯:২৩ অপরাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
প্রতিনিধি আবশ্যক, অনলাইন পত্রিকা আমার সুরমা ডটকমের জন্য প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন : ০১৭১৮-৬৮১২৮১, ০১৬২৫-৬২৭৬৪৩
বিজয় দিবসে বঙ্গভবনের ফটকে সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিমকে ‘অপমান’?

বিজয় দিবসে বঙ্গভবনের ফটকে সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিমকে ‘অপমান’?

ebrahin_108202

আমার সুরমা ডটকম : বিজয় দিবসের অনুষ্ঠানে বঙ্গভবনে আমন্ত্রণ পেয়েছিলেন বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান ও মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম, বীরপ্রতীক। সময়মতোই গিয়েছিলেন কিন্তু তারপরও বঙ্গভবনের প্রবেশপথে দাঁড়ানো নিরাপত্তাকর্মীরা তাঁকে প্রবেশের অনুমতি দেননি। এ ঘটনায় তিনি ক্ষুব্ধ  হয়েছেন।

বাসায় ফেরার পথে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম। এর শিরোনামে লেখা, ‘একজন বীরপ্রতীক-এর জন্য বিজয় দিবসের উপহার।’ ক্ষোভ প্রকাশ করে তিনি বলেছেন, ‘বিজয় দিবসে একজন বীরপ্রতীককে অপমান করা কি জরুরি?’
এ ব্যাপারে সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম বলেন, ‘আমার তিনটি পরিচয় আছে। আমি একজন বীরপ্রতীক। আমি একজন অবসরপ্রাপ্ত মেজর জেনারেল। আমি নিবন্ধিত একটি রাজনৈতিক দলের প্রধান। আমাকে বিজয় দিবস উপলক্ষে চিঠি দিয়ে বঙ্গভবনে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। নির্দিষ্ট প্রবেশপথে যাওয়ার পর সেখানে অবস্থান করা একজন ক্যাপ্টেন আমাকে বিনয়ের সঙ্গে বলেছেন, আপনি প্রধান গেট দিয়ে যান। এরপর আমি প্রধান গেটে চলে আসি। সেখানে অবস্থান করা সার্জেন্ট আমাকে জানান, তাঁর (সার্জেন্ট) কাছে স্পেশাল সিকিউরিটি ফোর্সের (এসএসএফ) একটা তালিকা আছে। তালিকায় থাকা ব্যক্তিরা বঙ্গভবনে প্রবেশ করতে পারবেন না। দুঃখিত বলে আমাকে ফেরত যেতে বলা হয়।’
সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম বলেন, ‘আমি খুবই অপমানিত বোধ করছি। ১৯৮০ সাল থেকে বিজয় দিবস, স্বাধীনতা দিবস ও ঈদ উপলক্ষে আমাকে বঙ্গভবনে আমন্ত্রণ জানানো হয়। আমাকে দাওয়াত না দিলে এক কথা।’
সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম আরো বলেন, ‘আজকের পরিচয় সাম্প্রতিক। এটা বদলে যেতে পারে। কিন্তু ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের ভূমিকা অপরিবর্তনীয়, নায়করা নায়কই থেকে যাবেন। আমার বীরপ্রতীক পরিচয় থেকেই যাবে, তা মুছবে না।’

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2017-2019 AmarSurma.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: