শুক্রবার, ০১ মার্চ ২০২৪, ১১:০৮ অপরাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
প্রতিনিধি আবশ্যক, অনলাইন পত্রিকা আমার সুরমা ডটকমের জন্য প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন : ০১৭১৮-৬৮১২৮১, ০১৬২৫-৬২৭৬৪৩
বেফাক মহাসচিব আল্লামা আব্দুল জব্বার আর নেই

বেফাক মহাসচিব আল্লামা আব্দুল জব্বার আর নেই

a-jabbar-picআমার সুরমা ডটকম: কওমী মাদরাসা শিক্ষাবোর্ড ‘বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া বাংলাদেশ (বেফাক)’ মহাসচিব আল্লামা আব্দুল জব্বার জাহানাবাদী (৮৪) আজ সকাল ১০টায় ঢাকাস্থ হলি ফ্যামেলী হসপিটালে ইন্তেকাল করেছেন। ইন্নালিল্লাহি ওয়াইন্না ইলাইহি রাজিউন। তিনি দীর্ঘদিন কিডনী ও শ্বাস কষ্টে ভুগছিলেন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী ও মেয়েসহ অসংখ্য আত্মীয়-স্বজন রেখে গেছেন।
বিভিন্ন মহলের শোকপ্রকাশ: আল্লামা আব্দুুল জব্বারের ইন্তেকালে বেফাক সভাপতি ও হেফাজতে ইসলামের আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফী গভীর শোকপ্রকাশ করেছেন। এছাড়া জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ, ইসলামি ঐক্যজোট, খেলাফত মজলিস, বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস নেতৃবৃন্দও শোক জানিয়েছেন।
এদিকে ইসলামি শিক্ষাবিদ বেফাক মহাসচিব মাওলানা আব্দুল জব্বার জাহানাবাদীর ইন্তেকালে গভীর শোকপ্রকাশ করেছেন বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া বাংলাদেশ-এর সহ-সভাপতি বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস-এর আমির জামেয়া মাদানিয়া কাজিরবাজার মাদরাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা মুহাম্মাদ হাবীবুর রহমান। নেতৃবৃন্দ মরহুমের আত্মার মাগফিরাত কামনা ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।
আমার সুরমা ডটকম পরিবারের শোকপ্রকাশ: কওমী মাদরাসা শিক্ষাবোর্ড ‘বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া বাংলাদেশ (বেফাক)’ মহাসচিব আল্লামা আব্দুল জব্বার জাহানাবাদীর ইন্তেকালে গভীর শোকপ্রকাশ করেছেন ‘আমার সুরমা সাংবাদিক ফোরাম’-এর চেয়ারম্যান ও ‘আমার সুরমা ডটকম’ পত্রিকার সম্পাদক মুহাম্মদ আব্দুল বাছির সরদার। তিনি শোকবার্তায় মরহুমের আত্মার মাগফেরাত কামনা ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমাবেদনা জ্ঞাপন করেন।

প্রসঙ্গত, মাওলানা আব্দুল জব্বার ১৯৬১ সালে রাজধানীর বড়কাটারা মাদরাসা থেকে দাওরায়ে হাদীস পাস করে সেখানেই শিক্ষকতা শুরু করেন। পরে যাত্রাবাড়ি জামিয়া মাদানিয়া মাদরাসার অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা হিসেবে সেখানে কিছুদিন শিক্ষকতা করেন। তিনি রাজনীতিতে যোগ দিয়ে জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের ঢাকা মহানগর শাখার সেক্রেটারির দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৭৮ সালে বেফাক প্রতিষ্ঠিত হলে তিনি এতে যোগ দিয়ে আমত্যু বেফাকের মহাসচিবের দায়িত্ব পালন করেন।
বিভিন্ন সূত্রে জানা যায়, তিনি বেফাকের জন্য নিরলসভাবে কাজ করেছেন ক্লান্তিহীন, বিরামহীন। কখনো বিরক্ত বা হতাশ হননি তিনি। অবিচল থেকে এগিয়ে নিয়েছেন বেফাককে। বেফাকের আজকের এই অবস্থানের পেছনে সবচেয়ে বেশি যিনি অবদান রেখেছেন, তিনি কওমি মাদরাসা সমূহের সফল কাণ্ডারি মাওলানা আব্দুল জব্বার জাহানাবাদী। স্বাধীনতার পূর্বাপর বাংলাদেশে আলেম-উলামা ও ইসলামপন্থীদের যত আন্দোলন হয়েছে, এতেও তাঁর অবদান ইতিহাসের পাতায় স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে। আজ বাদ এশা বায়তুল মুকাররাম জাতীয় মসজিদে তার নামাযে জানাযা অনুষ্ঠিত হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2017-2019 AmarSurma.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: