মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ০৯:২৯ অপরাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
প্রতিনিধি আবশ্যক, অনলাইন পত্রিকা আমার সুরমা ডটকমের জন্য প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন : ০১৭১৮-৬৮১২৮১, ০১৬২৫-৬২৭৬৪৩
মনোনয়ন দাখিল চেয়ারম্যান পদে ৭৪, সাধারণ সদস্য ৫৬০ ও সংরক্ষিত ১৭৩

মনোনয়ন দাখিল চেয়ারম্যান পদে ৭৪, সাধারণ সদস্য ৫৬০ ও সংরক্ষিত ১৭৩

log-upমুহাম্মদ আব্দুল বাছির সরদার : সকল জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে দিরাই-শাল্লার ১৩টি ইউনিয়নে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) ও আওয়ামীলীগের দলীয় প্রতীক নিয়ে ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বীতা কারীরা তাদের মনোনয়নপত্র জমা দানের শেষ দিন পর্যন্ত সংশ্লিষ্ট দায়িত্বপ্রাপ্ত নির্বাচন কর্মকর্তার কাছে জমা দিয়েছেন। সংশ্লিষ্ট অফিস সূত্রে জানা যায়, মনোনয়নপত্র জমা দানের শেষ দিন পর্যন্ত দিরাই-শাল্লায় জমা পড়েছে মোট ৮০৭টি, এরমধ্যে চেয়ারম্যান পদে ৭৪টি, সাধারণ সদস্য পদে ৫৬০টি, সংরক্ষিত আসনে ১৭৩টি। সূত্র মতে, দিরাই উপজেলার ৯টি ইউনিয়নে মনোনয়নপত্র জমা পড়েছে ৫২৬টি, এরমধ্যে চেয়ারম্যান পদে ৫১টি, সাধারণ সদস্য পদে ৩৬৪টি, সংরক্ষিত আসনে ১১১টি। শাল্লা উপজেলার ৪টি ইউনিয়নে মনোনয়নপত্র জমা পড়েছে ২৮১টি, এরমধ্যে চেয়ারম্যান পদে ২৩টি, সাধারণ সদস্য পদে ১৯৬টি, সংরক্ষিত আসনে ৬২টি। সূত্র আরো জানায়, দিরাই-শাল্লায় ১৩ ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের দলীয়প্রার্থী ১৩ জন, বিএনপির ১২ জন, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের ৩ জন, ইসলামি আন্দোলনের ১ জন, জাসদের ১ জন, স্বতন্ত্র হিসেবে ৩৬ জন, আওয়ামীলীগ ও বিএনপির বিদ্রোহীপ্রার্থী ৭ জন।
জানা যায়, রফিনগর ইউনিয়নে মোট ৫৫টি, এরমধ্যে চেয়ারম্যান পদে ৬টি, সাধারণ সদস্য পদে ৩৭টি, সংরক্ষিত আসনে ১২টি। চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপত্র জমা দানকারীরা হলেন স্বতন্ত্র হিসেবে বর্তমান চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর চৌধুরী, আল মামুন, মহসিন রেজা, বিকাশ তালুকদার, আওয়ামীলীগের মোঃ রেজুয়ান হোসেন খান ও বিএনপির মোঃ আনিছুর রহমান।
ভাটিপাড়া ইউনিয়নে মোট ৪১টি, এরমধ্যে চেয়ারম্যান পদে ৬টি, সাধারণ সদস্য পদে ২৫টি, সংরক্ষিত আসনে ১০টি। চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপত্র জমা দানকারীরা হলেন স্বতন্ত্র হিসেবে বেলাল আহমেদ, মোঃ শাহজাহান কাজী, মোঃ মাহবুব বক্ত চৌধুরী, আলমগীর বক্ত চৌধুরী, আওয়ামীলীগের জাহেদুল ইসলাম চৌধুরী ও বিএনপির মোঃ আফজল হোসেন।
রাজানগর ইউনিয়নে মোট ৬২টি, এরমধ্যে চেয়ারম্যান পদে ৭টি, সাধারণ সদস্য পদে ৪৩টি, সংরক্ষিত আসনে ১২টি। চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপত্র জমা দানকারীরা হলেন স্বতন্ত্র হিসেবে নওশেরান চৌধুরী, মোঃ রুনু মিয়া সর্দার, জহিরুল ইসলাম, মোঃ আব্দুল হক তালুকদার, আওয়ামীলীগের সৌম্য চৌধুরী, বিএনপির জুনায়েদ মিয়া ও জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের মোঃ আব্দুর রউফ তালুকদার।
চরনারচর ইউনিয়নে মোট ৬৩টি, এরমধ্যে চেয়ারম্যান পদে ৪টি, সাধারণ সদস্য পদে ৪৫টি, সংরক্ষিত আসনে ১৪টি। চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপত্র জমা দানকারীরা হলেন স্বতন্ত্র হিসেবে পরেশ লাল দাস, শাহিন সুলতান তালুকদার শাহজাহান, বিএনপির রতন কুমার দাস ও আওয়ামীলীগের পরিতোষ রায়।
দিরাই সরমঙ্গল ইউনিয়নে মোট ৫৩টি, এরমধ্যে চেয়ারম্যান পদে ৫টি, সাধারণ সদস্য পদে ৩৬টি, সংরক্ষিত আসনে ১২টি। চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপত্র জমা দানকারীরা হলেন স্বতন্ত্র হিসেবে বর্তমান চেয়ারম্যান এহসান চৌধুরী, মহানন্দ দাস, বিএনপির মোঃ মোয়াজ্জেম হোসেন, আওয়ামীলীগের কানুলাল দাস ও জাসদের কৃষ্ণকান্ত রায়।
করিমপুর ইউনিয়নে মোট ৫৩টি, এরমধ্যে চেয়ারম্যান পদে ৩টি, সাধারণ সদস্য পদে ৩৭টি, সংরক্ষিত আসনে ১৩টি। চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপত্র জমা দানকারীরা হলেন স্বতন্ত্র হিসেবে শাহাজাহান সরদার, আওয়ামীলীগের বর্তমান চেয়ারম্যান আছাব উদ্দিন সরদার ও বিএনপির মোঃ আব্দুর রহিম।
জগদল ইউনিয়নে মোট ৬৯টি, এরমধ্যে চেয়ারম্যান পদে ৫টি, সাধারণ সদস্য পদে ৫৪টি, সংরক্ষিত আসনে ১০টি। চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপত্র জমা দানকারীরা হলেন ইসলামি আন্দোলনের মোঃ সোলাইমান হাসান, স্বতন্ত্র হিসেবে মোঃ শিবলী আহমেদ বেগ, আওয়ামীলীগের মোঃ হুমায়ুন রশিদ, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের কেএম তোফায়েল আহমদ ও বিএনপির মোঃ কামরুল ইসলাম।
তাড়ল ইউনিয়নে মোট ৬১টি, এরমধ্যে চেয়ারম্যান পদে ৮টি, সাধারণ সদস্য পদে ৪০টি, সংরক্ষিত আসনে ১৩টি। চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপত্র জমা দানকারীরা হলেন স্বতন্ত্র হিসেবে বর্তমান চেয়ারম্যান নূরুল হক তালুকদার, রুহুল আমীন, দ্রুপদ চৌধুরী নুপুর, মোঃ আকিকুর রেজা, মোঃ আব্দুল কদ্দুছ, আওয়ামীলীগের আহমদ চৌধুরী, বিএনপির আলী আহমদ ও জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের হাজী গিয়াস উদ্দিন।
কুলঞ্জ ইউনিয়নে মোট ৬৯টি, এরমধ্যে চেয়ারম্যান পদে ৭টি, সাধারণ সদস্য পদে ৪৭টি, সংরক্ষিত আসনে ১৫টি। চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপত্র জমা দানকারীরা হলেন স্বতন্ত্র হিসেবে বর্তমান চেয়ারম্যান মোঃ আহাদ মিয়া, কাওসার গাজী চৌধুরী, পবিত্র মোহন দাস, মোঃ একরার হোসেন, মোঃ মিজবাহ উজ্জামান চৌধুরী, আওয়ামীলীগের মিলন মিয়া ও বিএনপির মোঃ মুজিবুর রহমান।
এদিকে শাল্লা উপজেলার ৪টি ইউনিয়নে মনোনয়নপত্র জমা পড়েছে ২৮১টি, এরমধ্যে চেয়ারম্যান পদে ২৩টি, সাধারণ সদস্য পদে ১৯৬টি, সংরক্ষিত আসনে ৬২টি। বাহারা ইউনিয়নে মোট ৬৮টি, এরমধ্যে চেয়ারম্যান পদে ৪টি, সাধারণ সদস্য পদে ৪৯টি, সংরক্ষিত আসনে ১৫টি। চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপত্র জমা দানকারীরা হলেন আওয়ামীলীগের বিধান চন্দ্র চৌধুরী, আওয়ামীলীগের বিদ্রোহীপ্রার্থী কাজল কান্তি চৌধুরী, নরেশ চৌধুরী ও স্বতন্ত্র হিসেবে বর্তমান চেয়ারম্যান জাকির হোসেন।
হবিবপুর ইউনিয়নে মোট ৭৬টি, এরমধ্যে চেয়ারম্যান পদে ৪টি, সাধারণ সদস্য পদে ৫২টি, সংরক্ষিত আসনে ২০টি। চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপত্র জমা দানকারীরা হলেন আওয়ামীলীগের বিবেকানন্দ মজুমদার বকুল, আওয়ামীলীগের বিদ্রোহীপ্রার্থী সুবল চন্দ্র দাস, আবুল হাসনাত লিটন ও বিএনপির শৈলেন কুমার দাস।
আটগাঁও ইউনিয়নে মোট ৭৩টি, এরমধ্যে চেয়ারম্যান পদে ১১টি, সাধারণ সদস্য পদে ৫১টি, সংরক্ষিত আসনে ১১টি। চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপত্র জমা দানকারীরা হলেন স্বতন্ত্র হিসেবে হাজিরুল ইসলাম, ফজলুর রহমান, খুরশেদ মিয়া, দবির মনির, আব্দুর রহমান, জুবায়ের মনির, জাকির হোসেন, আওয়ামীলীগের আবুল কাসেম আজাদ, বিএনপির আব্দুল্লাহ আল নোমান ও বিএনপির বিদ্রোহীপ্রার্থী নজরুল ইসলাম।
শাল্লা ইউনিয়নে মোট ৬৪টি, এরমধ্যে চেয়ারম্যান পদে ৪টি, সাধারণ সদস্য পদে ৪৪টি, সংরক্ষিত আসনে ১৬টি। চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপত্র জমা দানকারীরা হলেন আওয়ামীলীগের আব্দুল ছত্তার মিয়া, আওয়ামীলীগের বিদ্রোহীপ্রার্থী জামান চৌধুরী ফুল মিয়া, আবুলেইছ চৌধুরী ও বিএনপির সিরাজুল ইসলাম সিরাজ।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2017-2019 AmarSurma.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: