মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ০৯:২৯ অপরাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
প্রতিনিধি আবশ্যক, অনলাইন পত্রিকা আমার সুরমা ডটকমের জন্য প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন : ০১৭১৮-৬৮১২৮১, ০১৬২৫-৬২৭৬৪৩
ষড়যন্ত্র সরকারের বিরুদ্ধে নাকি বিএনপির বিরুদ্ধে

ষড়যন্ত্র সরকারের বিরুদ্ধে নাকি বিএনপির বিরুদ্ধে

aslam cআমার সুরমা ডটকম সরকার উৎখাতের এক ‘মস্তবড়’ ষড়যন্ত্র উদঘাটিত হয়েছে। সারাদেশের বিএনপি নেতা-কর্মীদের কাছে অপরিচিত, জুনিয়র এক বিএনপি নেতা এই বড় কাজটির নেতৃত্ব দিচ্ছেন। কিন্তু, দলের চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া নিজেই জানেন না এই ‘মস্তবড়’ কাজটির খবর। শুধু খালেদা জিয়াই নন, দলের অন্য কোনো নেতা-নেত্রীও জানেন না। যা অবাক করার মতো বিষয়ই বটে।
অবাক ব্যাপার হলো, সরকার উৎখাত ষড়যন্ত্রের যেসব ‘গোপন’ বৈঠকের ছবি প্রকাশিত হচ্ছে তার কোনোটিই গোপন নয়। ছবি দেখেই বোঝা যায় বিভিন্ন ভঙ্গিতে পোজ দিয়ে ছবিগুলো তোলা হয়েছে। অর্থাৎ ফটোসেশন হয়েছে। এসব ফটোসেশন আদৌ কোন উদ্দেশ্যে করা হয়েছে, ছবি কারা তুলেছেন, কেন তুলেছেন এসব প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। বেগম খালেদা জিয়া নিজেই অবাক হয়েছেন। তাও এমন এক নেতা এর সঙ্গে জড়িত, যিনি কেন্দ্রীয় নেতা নন, ইতিপূর্বে কেন্দ্রীয় বা দলের অন্য গুরুত্বপূর্ণ বিশেষ কোনো দায়িত্বও পালন করেননি।
চট্টগ্রাম উত্তর জেলা বিএনপি অর্থাৎ চট্টগ্রামের স্থানীয় নেতা আসলাম চৌধুরী। গত মার্চের জাতীয় সম্মেলনের পর অনেক নেতাকেই কেন্দ্রীয় পর্যায়ে তুলে আনার নীতি গ্রহণ করে বিএনপি, বিশেষ করে কেন্দ্রের শূন্যতা পূরণের জন্য। সেই অনেকের মতো আসলাম চৌধুরীরও ভাগ্যের সিঁকে ছিঁড়েছে দলে। অন্যদের সঙ্গে যুগ্ম মহাসচিবের পদ পেয়েছেন তিনি।
আসলাম চৌধুরীর অন্য পেশাগত ব্যাকগ্রাউন্ডও ভালো নয়। তিনি চট্টগ্রামে স্থানীয়ভাবে জমি, প্লট ক্রয়-বিক্রয়ের ব্যবসা করেন বলে জানা যায়। যা আদতে উল্লেখযোগ্য কোনো ব্যবসা নয়। আন্তর্জাতিক কানেকশন তো নেই-ই। সেই আসলাম চৌধুরী কীভাবে বিএনপির পক্ষ থেকে এতোবড়ো দায়িত্ব পেলেন, তাকে কেই-বা এ দায়িত্ব দিলো-এসব অত্যন্ত রহস্যজনক বিষয়। যদি গোপন বৈঠকই করবেন, তাহলে এমন ‘প্রমোদ ভ্রমণ’র ফটোসেশন কেন? তাও আবার ভারতে! গোয়েন্দা সংস্থা মোসাদ কী এতোই ‘বেখবর’ যে, তারা জানে না ভারতে বসে কিছু একটা করলে তা ফাঁস হয়ে যাবে?
বিএনপি সূত্র থেকে জানা গেছে, চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া আসলাম চৌধুরীর মোসাদ সংশ্লিষ্টতার খবরে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন। এমন এক ব্যক্তি সরকার হটানোর দায়িত্ব পালন করছেন যাকে তিনি ভালো করে চেনেনই না, অর্থাৎ কখনো একা বিশেষ কোনো সাক্ষাতও হয়নি। বিএনপি নেতারা মনে করছেন, বিএনপিকে বিব্রতকর অবস্থায় ফেলার জন্যই উদ্দেশ্যমূলকভাবে এগুলো করা হয়েছে। বাংলাদেশসহ গোটা মুসলিম বিশ্বে ইসরাইল ‘অস্পৃশ্য’। সেই ইসরাইলের সঙ্গে ষড়যন্ত্রে বিএনপিকে যুক্ত করাটা ‘উদ্দেশ্যমূলক’ ছাড়া কিছুই নয়।
এটা কারো অজানা নয়, মোসাদ বিশ্বে সবচে’ দুর্ধর্ষ গোয়েন্দা সংস্থা। আর এটাও সবাই জানেন, বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকারকে ২০১৩ সাল থেকে ক্ষমতায় বসিয়ে রেখেছে একমাত্র ভারতই। সেই ভারতেরই দিল্লী, আগ্রাসহ বিভিন্ন স্থানে মোসাদের কথিত এজেন্ট মেন্দি এন সাফাদির সঙ্গে ফটোসেশনে অংশ নেন আসলাম চৌধুরী। একত্রে টেবিলে বসে খাচ্ছেন, হোটেলের সামনে ফুলের মালা গলায় পোজ দিচ্ছেন প্রভৃতি এমন ছবি প্রকাশিত হয়েছে। এসব ফটোসেশনে আরো কয়েক ব্যক্তিও সঙ্গে রয়েছেন। আদৌ কেন তারা দেখা-সাক্ষাত করেছেন, বিভিন্ন পোজে ছবি তুলেছেন, ফটোশেসন করেছেন, প্রমোদ ভ্রমণের মতো চলাফেরা করেছেন-এসব এখনো পুরোপুরি রহস্যাবৃত।
বিএনপির একজন সিনিয়র নেতা এ সম্পর্কে এক প্রতিক্রিয়ায় বলেছেন, আসলাম চৌধুরী আসলে সরকার উৎখাতের ষড়যন্ত্র করেছে, নাকি বিএনপির বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে জড়িত সেটা খতিয়ে দেখতে হবে। আসলাম চৌধুরীর এমন কোনো যোগ্যতা নেই, যাকে আমরা বা চেয়ারপারসন দলের পক্ষ থেকে সরকার উৎখাতের দায়িত্ব দিতে পারেন।
তিনি আরো বলেন, আসলাম চৌধুরী বস্তুত চট্টগ্রামের স্থানীয় নেতা, স্থানীয়ভাবে জমির দালালি ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত। মাঠে-ময়দানের কর্মসূচিতে কিছুটা সক্রিয় ছিলো তাই তাকে কেন্দ্রীয় পর্যায়ে পদ দেয়া হয়েছে। শুধু তাকে নয়, এরকমের অনেককেই এবার আমরা কেন্দ্রীয় পদ দিচ্ছি। আসলাম চৌধুরী তাদের মতোই একজন। তার অন্য কোনো বিশেষত্ব নেই। বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে সে কখনো একা সাক্ষাতেরই সুযোগ পায়নি। কাজেই তার অবস্থান কোথায় সেটা আপনারা সাংবাদিকরাই ভালো বুঝবেন।
বিএনপির এই সিনিয়র নেতা আরো জোর দিয়ে বলেন, ‘আমার ধারণা, সরকার বা সরকারের কোনো এজেন্সিই তাকে পিক করেছে এভাবে বিএনপির বিরুদ্ধে ব্যবহারের জন্য।’ তিনি বলেন, সরকার বিএনপিকে ধ্বংস করার জন্য একের পর এক ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছে। কিন্তু, এসব ষড়যন্ত্রে কাজ হবে না। বিএনপি ধ্বংস হবে না। বরং আরো জেগে উঠবে। দেশের মানুষ একমাত্র বিএনপির মধ্যেই তাদের মুক্তি ও উন্নয়ন দেখতে পারছে। মানুষ শুধু সময়ের জন্য অপেক্ষা করছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2017-2019 AmarSurma.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: