মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ০৮:০৯ অপরাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
প্রতিনিধি আবশ্যক, অনলাইন পত্রিকা আমার সুরমা ডটকমের জন্য প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন : ০১৭১৮-৬৮১২৮১, ০১৬২৫-৬২৭৬৪৩
সিলেট বিভাগের ৪৬টি ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ-বিএনপি কে কোথায়

সিলেট বিভাগের ৪৬টি ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ-বিএনপি কে কোথায়

xzআমার সুরমা ডটকম সিলেট বিভাগের ৪৬টি ইউনিয়নে নির্বাচনে আওয়ামীলীগের প্রার্থীরা ৩৮টি ইউনিয়নে জয়লাভ করেছেন। বিএনপির প্রার্থীরা পেয়েছে ৮টি ইউনিয়ন।

গোয়াইনঘাটের ৫টিতে আওয়ামীলীগ, ২টিতে বিএনপি বিজয়ী : সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলার ৭টি ইউনিয়নের মধ্যে আওয়ামী লীগের ৪ দলীয় প্রার্থী ও দলের ১ বিদ্রোহী প্রার্থী মিলে ৫জন ও ২টি ইউনিয়নে বিএনপির প্রার্থীরা বিজয়ী হয়েছেন। ১নং নন্দিরগাঁও ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ প্রার্থী কামরুল হাসান আমিরুল (নৌকা) প্রতীক নিয়ে ৫৮১৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি জামাল উদ্দিন (ধানের শীষ) নিয়ে পেয়েছেন ৫২৪৬ ভোট। ফতেহপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থী আমিনুর রহমান চৌধুরী (নৌকা) পেয়েছেন ৪৭৫৬ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি মিনহাজ উদ্দিন (স্বতন্ত্র) চশমা প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৩৯৩৫ ভোট। পূর্ব জাফলং ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ বিদ্রোহী প্রার্থী লূৎফুর রহমান লেবু মিয়া পেয়েছেন ১০০৩৮ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্ব›দ্বী রফিকুল ইসলাম (ধানের শীষ) পেয়েছেন ৫৯৭৯ ভোট। আলীরগাঁও ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ প্রার্থী গোলাম কিবরিয়া হেলাল (নৌকা) পেয়েছেন ৯৬৯৭ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি হাজী ফলিক মিয়া (ধানের শীষ) পেয়েছেন ৪৬৭৬ ভোট। তোয়াকুল ইউনিয়নে বিএনপি প্রার্থী খালেদ আহমদ পেয়েছেন ৪৩৪৯ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্ব›দ্বী মো. লোকমান (নৌকা) পেয়েছেন ৩৭২১ ভোট। রুস্তমপুর ইউনিয়নে শাহাব উদ্দিন শিহাব (ধানের শীষ) পেয়েছেন ৮৮৮৬ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্ব›দ্বী বিএনপি বিদ্রোহী প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ পেয়েছেন ৬৯১২ ভোট। পশ্চিম জাফলং ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ প্রার্থী খালেদ আহমদ (নৌকা) পেয়েছেন ৪৮০০ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্ব›দ্বী হোসেন আহমদ (স্বতন্ত্র) মোটরসাইকেল প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৪৬০০ ভোট।

কোম্পানীগঞ্জে ৪টিতে বিদ্রোহী, ১টিতে আওয়ামীলীগ ও ১টিতে বিএনপির বিদ্রোহী : সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার ৬টি ইউনিয়নে শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণ শেষে ফলাফল ঘোষণা করা হয়েছে। ঘোষিত ফলাফলে এ উপজেলায় আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থীদের জয়জয়কার হয়েছে। দলীয় প্রার্থীদের পেছনে ফেলে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার ৪টি ইউনিয়নে বিজয়ী হয়েছেন বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থীরা। এছাড়া একটি করে ইউনিয়নে বিজয়ী হয়েছেন আওয়ামীলীগ ও বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী। উপজেলার পশ্চিম ইসলামপুর ইউনিয়নে বিজয়ী হয়েছেন আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী জামাল উদ্দিন। এছাড়া আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীদের মধ্যে তেলিখালে বর্তমান চেয়ারম্যান কাজী আবদুল ওদুদ আলফু মিয়া, ইছাকলসে কুটি মিয়া, দক্ষিণ
রণিখাইয়ে সিদ্দিকুর রহমান রোকন ও উত্তর রণিখাইয়ে ফরিদ উদ্দিন বিজয়ী হয়েছেন। পূর্ব ইসলামপুরে বিজয়ী হয়েছেন বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী বাবুল মিয়া।

জুড়ীতে ৩টি আওয়ামীলীগ ২টি বিএনপি : জুড়ী উপজেলার ৫টি ইউনিয়নে ৩টিতে আওয়ামীলীগ ও ২টিতে বিএনপি জয়ী হয়েছে। পূর্ব জুড়ী ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের সালাহ উদ্দিন আহমদ ৪৬৭৭ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন, পশ্চিম জুড়ী ইউনিয়নের আওয়ামীলীগের শ্রীকান্ত দাস ৬১৬১ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন, জায়ফর নগর ইউনিয়নে বিএনপির হাজী মাসুম রাজা ৬৪৮৮ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন, সাগরনাল ইউনিয়নে বিএনপির এমদাদুল ইসলাম চৌধুরী ৫৬৪২ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন, গোয়ালবাড়ি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের সাহাব উদ্দিন লেমন ৫৮৬৪ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন।

বড়লেখায় আওয়ামীলীগ ৮ বিএনপি ২ : বড়লেখা উপজেলার ১০ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগের বড়লেখা সদর ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের সুয়েব আহমদ, বর্ণি ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের এনাম উদ্দিন, দাসেরবাজার ইউনিয়নে বিএনপির কমর উদ্দিন, নিজবাহাদুরপুর ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের ময়নুল হক, দক্ষিণভাগ (দক্ষিণ) ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের আজির উদ্দিন, দক্ষিণভাগ (উত্তর) ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের এনাম উদ্দিন, দক্ষিণ শাহবাজপুর ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী শাহাব উদ্দিন, উত্তর শাহবাজপুর ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের আহমদ জুবায়ের লিটন, তালিমপুর ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের বিদ্যুত কান্তি দাস এবং সুজানগর ইউনিয়নে বিএনপির নসিব আলী। বড়লেখা উপজেলা নির্বাচনের সমন্বয়ক ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার এসএম আবদুল্লাহ আল মামুন ও জুড়ী উপজেলা নির্বাচন অফিসার ফরহাদ হোসেন ফলাফলের বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

আজমিরীগঞ্জের ৫টিতেই আওয়ামীলীগ জয়ী : উৎসবমুখর পরিবেশে ঝড় বৃষ্টি উপেক্ষা করে গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত হবিগঞ্জ জেলা আজমিরীগঞ্জ উপজেলার ৫টি ইউনিয়নে একটানা নির্বাচনে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ৩টিতে আওয়ামী লীগ ও দুইটিতে আওয়ামীলীগ বিদ্রোহী প্রার্থীরা জয়লাভ করেছেন। এরমধ্যে ১নং আজমিরীগঞ্জ সদর ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ প্রার্থী আব্দুস কদ্দুছ মিয়া (নৌকা), ২নং বদলপুর ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ প্রার্থী সুশেনজিৎ চৌধুরী (নৌকা), ৩নং জলসুখা ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি ফয়েজ আহমেদ খেলু মিয়া (মোটরসাইকেল), ৪নং কাকাইলছেও ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ প্রার্থী নুরুল হক ভূইয়া (নৌকা), ৫নং শিবপাশা ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ও সাবেক চেয়ারম্যান আলী আমজাদ তালুকদার (আনারস)। এ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে উপজেলার ৫ ইউনিয়ন এলাকার কেন্দ্রগুলোতে সকাল থেকেই ভোটার সমাগম হয়। বেলা বাড়ার সাথে ভোটার উপস্থিতি বেড়ে যায়। দুপুরের পর থেকে আকাশ মেঘাছনড়ব হয়। পরে ঝড় বৃষ্টি নেমে আসে। তারপরও ভোটাররা এসে ভোট প্রদান করেন। ভোটগ্রহণকালে কোন অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়রি। ভোটকেন্দ্র পরিদর্শনকালে এমনচিত্র দেখা গেছে।

সে সময় আলাপ হলে শিবপাশা ইউনিয়নের বং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার ওমর ফারুক চৌধুরী জানান-দুপুর পর্যন্ত ১৭৮২ ভোটের মধ্যে ১২ ভোট কাস্টিং হয়েছে। ভোটাররা স্বাধীনভাবে ভোট প্রদান করেছেন। মখলিছ জান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার এহতেশামুল হক জানান-২০০৯ এরমধ্যে ১ হাজার ভোট কাস্টিং হয়েছে। একইভাবে এ উপজেলার প্রায় প্রত্যেক কেন্দ্রেই ভোটাররা ভোটপ্রদান করেছেন। এ উপজেলার ৫ ইউনিয়নে মোট ভোটার সংখ্যা ৬৬ হাজার ১শত ১৯ জন। এরমধ্যে পুরুষ ভোটার ৩৩ হাজার ২শত ৩৯ জন ও মহিলা ভোটার ৩২ হাজার ৯শত ৫৬ জন।

ছাতকে আওয়ামীলীগের ৯ জন, আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী ৩ জন, বিএনপির ১ জন বিজয়ী : ছাতক উপজেলায় দ্বিতীয় দফায় অনুষ্ঠিত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ১৩টি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগের ৯ জন, আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী ৩ জন ও বিএনপির ১ জন নির্বাচিত হয়েছেন। পুরো উপজেলার দু’একটি স্থানে বড় রকমের কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই গতকাল বৃহস্পতিবার ভোটগ্রহণ সম্পনড়ব হয়েছে। সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত টানা ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিতরা হলেন ছাতক সদর ইউপিতে আওয়ামী লীগের সাইফুল ইসলাম, কালারুকা ইউপিতে আওয়ামীলীগের অদুদ আলম, সিংচাপইড় ইউপিতে আওয়ামীলীগের সাহাব উদ্দিন সাহেল, উত্তর খুরমা ইউনিয়তে আওয়ামীলীগের বিলাল আহমদ, দক্ষিণ খুরমা ইউপিতে আওয়ামীলীগের আবদুল মছব্বির, ভাতগাঁও ইউপিতে আওয়ামীলীগের আওলাদ হোসেন মাস্টার, দোলারবাজার ইউপিতে আওয়ামীলীগের শায়েস্তা মিয়া ও ইসলামপুর ইউপিতে আওয়ামীলীগের আবদুল হেকিম, গোবিন্দগঞ্জ-সেদেরগাঁও ইউপিতে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী আখলাকুর রহমান, জাউয়াবাজার ইউপিতে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী মো. মুরাদ হোসেন, নোয়ারাই ইউপিতে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী দেওয়ান আবদুল খালিক পীর। পুরো উপজেলায় চরমহল্লা ইউপিতে বিএনপির প্রার্থী আবুল হাসনাত বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2017-2019 AmarSurma.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: