মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ০৩:২২ পূর্বাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
প্রতিনিধি আবশ্যক, অনলাইন পত্রিকা আমার সুরমা ডটকমের জন্য প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন : ০১৭১৮-৬৮১২৮১, ০১৬২৫-৬২৭৬৪৩
হিলারির প্রেসিডেন্ট হওয়ার সম্ভাবনা ৯৮.১

হিলারির প্রেসিডেন্ট হওয়ার সম্ভাবনা ৯৮.১

hilariআমার সুরমা ডটকম ডেক্সমার্কিন প্রভাবশালী গণমাধ্যম হাফিংটন পোস্ট কার প্রেসিডেন্ট হওয়ার সম্ভাবনা কতটুকু এমন একটি জরিপ পরিচালনা করছে এবং প্রতিনিয়ত তার আপডেট দিচ্ছে। গত বুধবার পর্যন্ত তাদের জরিপে দেখা গেছে, সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটনের প্রেসিডেন্ট হওয়ার সম্ভাবনা ৯৮.১ শতাংশ। অন্যদিকে ক্যাসিনো ব্যবসায়ী ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রেসিডেন্ট হওয়ার সম্ভাবনা মাত্র মাত্র ১.৭ শতাংশ। রিপাবলিকান দলের অনেকেই বিশ্বাস করতে পারেন না ট্রাম্পের প্রেসিডেন্ট হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। মার্কিন নির্বাচনের মূল নিয়ামক ইলেক্টোরাল কলেজের ভোট। হাফিংটন পোস্টের হিসাব অনুযায়ী হিলারি ৩৪০টি ইলেক্টোরাল ভোট পেতে যাচ্ছেন। প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হতে প্রয়োজন মাত্র ২৭০ ভোট। আর ট্রাম্পের ১৯৮টি ইলেক্টোরাল ভোট পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এতে ৭২ ইলেক্টোরাল ভোট ব্যাটলগ্রাউন্ড রাজ্যে অনিশ্চিত হিসেবে দেখানো হয়েছে। ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের জরিপ অনুযায়ী হিলারি কমপক্ষে ২৭৮টি ইলেক্টোরাল ভোট পাবেন, ট্রাম্প পেতে পারেন ১৭৯ ইলেক্টোরেটের সমর্থন। প্রসঙ্গত, কয়েকদিন পরই অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন। বিতর্ক, অভিযোগ আর বাকযুদ্ধের মধ্যেই এগিয়ে চলছে প্রধান দুই দলের প্রচারণা। মুসলিম ও অভিবাসী নিয়ে বেফাঁস মন্তব্য করে বিতর্কিত রিপাবলিকান প্রার্থী কর ফাঁকি ও নারী কেলেংকারিতে নিজেকে আরও ডুবিয়েছিলেন। জনমত জরিপেও পড়েছিলেন পিছিয়ে। অন্যদিকে ডেমোক্রেটিক প্রার্থী হিলারি ক্লিনটন টানা তিন প্রেসিডেন্সিয়াল বিতর্কে জয়ী হয়ে জনপ্রিয়তার উচ্চাসন ধরে রেখেছিলেন। তবে সম্প্রতি হিলারির ব্যক্তিগত সার্ভারে ইমেইল চালাচালি নিয়ে এফবিআইর নতুন তদন্ত ঘোষণায় ধূম্রজাল তৈরি হয়েছে। অধিকাংশ জনমত জরিপে এখনও হিলারি ক্লিনটন সুস্পষ্ট ব্যবধানে এগিয়ে থাকলেও এবিসি নিউজ ও ওয়াশিংটন পোস্টের জরিপে ট্রাম্পকেই এক পয়েন্টে এগিয়ে রাখা হয়েছে। আগামী ৮ নভেম্বরের নির্বাচনের মাধ্যমে কে হতে যাচ্ছেন হোয়াইট হাউসের অধিপতি- এ প্রশ্ন এখন তাই সবার মনে। এদিকে সিএনএন জানিয়েছে, হিলারির জনপ্রিয়তা কিছুটা কমেছে আর ট্রাম্পের বেড়েছে। তা সত্ত্বেও ট্রাম্প হোয়াইট হাউসের দৌড়ে এখনও বেশ পিছিয়ে। ২০ অক্টোবর হিলারির জয়ের সম্ভাবনা ছিল ৯৫ ভাগ আর ট্রাম্পের মাত্র ৫ ভাগ। তবে এরপর থেকে হিলারির সম্ভাবনা কমতে থাকে আর বাড়তে থাকে ট্রাম্পের। বর্তমানে হিলারির জয়ের সম্ভাবনা ৭৮ ভাগ আর ট্রাম্পের ২২ ভাগ।  সবশেষ রয়টার্স/ইপসস জরিপ অনুযায়ী, ট্রাম্পের চেয়ে হিলারি ৬ পয়েন্ট এগিয়ে আছেন। তবে বিভিন্ন জরিপে দুই প্রার্থীর মধ্যে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের আভাস পাওয়া যাচ্ছে। ফ্লোরিডায় এক প্রচারাভিযানে ট্রাম্প বলেন, হিলারি দেশকে নেতৃত্ব দেওয়ার অযোগ্য। হিলারিকে পুরোপুরি মানসিক ভারসাম্যহীন বলে আক্রমণ করেন তিনি। লাস ভেগাসে সমর্থকদের উদ্দেশে হিলারি বলেন, মার্কিনীদের মধ্যে ট্রাম্প বিভক্তি সৃষ্টি করছেন। তিনি একজন দিয়ে আরেকজনকে ফাঁদে ফেলছেন। ট্রাম্পের জ্ঞানের গভীরতা নেই বলে উল্লেখ করেন হিলারি। পররাষ্ট্রনীতি বিষয়ে ট্রাম্পের বিভিন্ন প্রস্তাবকে কল্পনাতীত ভয়ংকর বলে অভিহিত করেন হিলারি। পলিটিকো ম্যাগাজিনের নির্বাচনী পূর্বাভাস অনুযায়ী হিলারি ক্লিনটনের প্রেসিডেন্ট হওয়ার সম্ভাবনা ৮০ শতাংশ আর ট্রাম্পের ২০ শতাংশ। সপ্তাহখানিক আগে বার্তা সংস্থা রয়টার্স ও জরিপ সংস্থা ইপসোস পরিচালিত এক জরিপে দেখা গেছে, অর্ধেকের বেশি রিপাবলিকান ভোটার মনে করেন, প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডোনাল্ড ট্রাম্প নন, জিতবেন হিলারি ক্লিনটন। ওই জরিপ অনুযায়ী, ৪১ শতাংশ রিপাবলিকান ভোটার মনে করেন, এবারের নির্বাচনে ডেমোক্রেটিক পার্টির প্রার্থী হিলারি বিজয়ী হবেন। বিপরীতে ৪০ শতাংশ রিপাবলিকান বিশ্বাস করেন, প্রেসিডেন্ট পদে তাদের প্রার্থী ট্রাম্প জয়ী হবেন। ওয়েবসাইট।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2017-2019 AmarSurma.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: