বৃহস্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ০১:০২ অপরাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
প্রতিনিধি আবশ্যক, অনলাইন পত্রিকা আমার সুরমা ডটকমের জন্য প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন : ০১৭১৮-৬৮১২৮১, ০১৬২৫-৬২৭৬৪৩
২৪ ঘণ্টায় জাপানে ২৫২ বার কম্পন

২৪ ঘণ্টায় জাপানে ২৫২ বার কম্পন

japan-ertq-3-300x166আমার সুরমা ডটকম ডেক্সগত ২৪ ঘণ্টায় সূর্যোদয়ের দেশ জাপানে ২৫২ বার ভূমিকম্প হয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির আবহাওয়া কর্তৃপক্ষ। শনিবার কর্তৃপক্ষের বরাত দিয়ে স্থানীয় সংবাদমাধ্যম এমনটা জানিয়েছে। জাপান মেটোরোলজিক্যাল এজেন্সি বলছে, স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার রাত ৬টা ২৬ মিনিট থেকে শনিবার সকাল ১১টা পর্যন্ত ২৫২বার ভূমকম্প হয়েছে। যা ১৯৯৫ সালের ভয়াবহ ভূমিকম্পের চেয়ে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ। সর্বশেষ জাপানে শক্তিশালী কম্পনের রেশ না কাটতেই কুমামতো প্রদেশে শনিবার স্থানীয় সময় বিকেল সোয়া ৫টার দিকে ফের ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে। রিকটার স্কেলে এ কম্পনের মাত্রা ছিলো ৫ দশমিক ৩। কর্তৃপক্ষ বলছে, দেশটির কুমামতো প্রদেশে আঘাত হানা এ ভূমিকম্পের গভীরতা ছিল ভূ-পৃষ্ঠ থেকে ১০ কিলোমিটার। যার উৎপত্তিস্থল ছিলো দেশটির কুমামতো-চিহি এলাকায়। এর আগে স্থানীয় শনিবার রাত ১টা ২৫ মিনিটে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের এই প্রদেশে শক্তিশালী ভূমিকম্প হয়। রিকটার স্কেলে এ কম্পনের মাত্রা ছিলো ৭।

ইউএসজিএস জানায়, জাপানের কিয়েশু পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র থেকে ১২০ কিলোমিটার দূরে এই ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থল ছিলো দেশটির ইউকি শহর থেকে মাত্র ১৩ কিলোমিটার দূরে, ভূ-পৃষ্ঠের ১০ কিলোমিটার গভীরে। এর কিছুক্ষণের মধ্যেই ওই অঞ্চলে ৫ দশমিক ৮ ও ৫ দশমিক ৭ মাত্রার আরও দু’টি কম্পন অনুভূত হয়। এ নিয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় জাপানের ওই অঞ্চলে তিন দফা ভূমিকম্প হয়েছে। এতে অনেক হতাহতের ঘটনাও ঘটেছে।

ক্ষণে ক্ষণে ভূমিকম্প হওয়ায় জাপান সরকার আশঙ্কা করছে,  ২০১১ সালের সুনামির পর এটা দেশটির জন্য বড় ধরনের বিপর্যয় ডেকে আনতে পারে। স্থানীয়ভাবে সুনামি সতর্ক জারিসহ কুমামতো বিমানবন্দরের সব ফ্লাইট বাতিল করেছে সরকার। বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে  ট্রেন যোগাযোগও। এছাড়া শনিবার দেশটির দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে পৃথকটি পাঁচটি ক্রীড়া অনুষ্ঠান বাতিল করেছে কর্তৃপক্ষ।

গত বৃহস্পতিবার রাতে কুমামতো ও কিয়েশু প্রদেশে ৬ দশমিক ৪ মাত্রার ভূমিকম্প আঘাত হানে। এতে বিপুল সংখ্যক বাড়ি-ঘর ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। রাতের ওই ভূমিকম্পে ধ্বংসস্তূপের নিচে চাপা পড়ে ৯ জনের মৃত্যু হয়, আহত হন সহস্রাধিক। দেশটির রাজধানী টোকিওতে এক সংবাদ সম্মেলনে জাপানের মন্ত্রিপরিষদ সচিব ইয়াশিদো সুগা বলেন, ২০১১ সালের সুনামির পর এটি বড় ধরনের ভূমিকম্প। ১৯টি বাড়ি ধসে কবরস্থানে পরিণত হয়েছে। আমরা উদ্ধার তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছি। দফা দফায় এসব ভূমিকম্পের আঘাতে এ পর্যন্ত ২৯ জন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে বলে নিশ্চিত করেছে স্থানীয় সংবাদমাধ্যম। সূত্র: জাপান টুডে

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2017-2019 AmarSurma.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: