বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১২:৩৫ অপরাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
প্রতিনিধি আবশ্যক: অনলাইন পত্রিকা আমার সুরমা ডটকমের জন্য প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন : ০১৭১৮-৬৮১২৮১, ০১৭৯৮-৬৭৬৩০১
দক্ষিণ সুনামগঞ্জে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে প্রকল্পের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ দায়ের

দক্ষিণ সুনামগঞ্জে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে প্রকল্পের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ দায়ের

এমএম ইলিয়াছ আলী, দক্ষিণ সুনামগঞ্জ প্রতিনিধিঃ দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার পুর্বপাগলা ইউনিয়নে দুই ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে স্থানীয় এলাকাবাসী উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে অভিযোগ দায়ের করেছেন। গত মঙ্গলবার দুপুরে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার (অতিরিক্ত দায়িত্বে) জিনাত রহমানের নিকট লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন চিকারকান্দি গ্রামের মোঃ ছমির উদ্দিন, কমরু মিয়া ও মোঃ আউয়াল মিয়াসহ স্থানীয় এলাকাবাসী।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, পূর্বপাগলা ইউনিয়নের চিকারকান্দি গ্রামের সিকন্দর আলীর বাড়ীর সম্মুখ হইতে আবিদ আলীর বাড়ীর পর্যন্ত রাস্তায় মাটি বরাটের জন্য পূর্বপাগলা ইউনিয়ন পরিষদ থেকে টিআর প্রকল্পের মাধ্যমে ১,১০,২৩২/- (এক লক্ষ দশ হাজার দুইশত বত্রিশ) টাকা প্রদান করা হয়। কিন্তু স্থানীয় ইউপি সদস্য মোঃ আবদাল মিয়া বর্ণিত প্রকল্পের কোন কাজ না করে প্রকল্প চেয়ারম্যান কমিটির সদস্যরা পুরো টাকাই আত্মসাৎ করেছেন বলে অভিযোগে দায়ের করেন।
অপরদিকে একই গ্রামের নতুন ব্রীজের সামন হইতে প্রধান সড়ক পর্যন্ত রাস্তায় মাটি ভরার করার জন্য পূর্বপাগলা ইউনিয়ন পরিষদ থেকে টিআর প্রকল্পের মাধ্যমে ১,৫০,০০০/- (এক লক্ষ পঞ্চাশ হাজার) টাকা প্রদান করা হয়। কিন্তু স্থানীয় ইউপি সদস্যা আফরোজা বেগম বর্ণিত প্রকল্পের কোন কাজ না করে প্রকল্প চেয়ারম্যান কমিটির সদস্যরা পুরো টাকাই আত্মসাৎ করেছেন বলে অভিযোগে দায়ের করেন।
ইউপি সদস্য আবদাল মিয়ার সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, বর্ণিত প্রকল্পটি ভূলক্রমে চিকারকান্দি লিখা হয়েছে। কিন্তু প্রকল্পটি মনবেগ এলাকায় ছিল। আমি মনবেগ এলাকায় কাজটি সম্পন্ন করেছি।
ইউপি সদস্য আফরোজা বেগমের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করলে তার মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।
পূর্বপাগলা ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ আক্তার হোসেন বলেন, কাজ না করিয়ে টাকা আত্মসাতের বিষয়ে বলেন, অভিযুক্তদেরকে টাকা ফেরত দেওয়ার জন্য বলেছি। সপ্তাহ খানেকের মধ্যে অভিযুক্তরা টাকা ফেরত দেবে।
দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার (অতিরিক্ত দায়িত্বে) জিনাত রহমান অভিযোগের বিষয়ে সত্যতা স্বীকার করে বলেন তদন্ত পূর্বক আইনানূগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2017-2019 AmarSurma.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com