বৃহস্পতিবার, ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৫:৫২ অপরাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
প্রতিনিধি আবশ্যক, অনলাইন পত্রিকা আমার সুরমা ডটকমের জন্য প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন : ০১৭১৮-৬৮১২৮১, ০১৬২৫-৬২৭৬৪৩
সংবাদ শিরোনাম :
এইচএসসির ফল প্রকাশ, পাসের হার ৮৫.৯৫ শতাংশ নিহতের সংখ্যা ৫০০০ ছাড়ালো, তিন মাসের জরুরি অবস্থা জারি তুরস্কে রাজাকার ও বিএনপির লোকদের নিয়ে সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের শোকর‌্যালি পাকিস্তানের সাবেক সামরিক শাসক পারভেজ মোশাররফের মৃত্যু চট্টগ্রাম কলেজের ১৭৫ শিক্ষার্থী ৩ ঘন্টার অভিযানে ডুবোচর থেকে উদ্ধার ফরিদপুরে একই পরিবারে ৫ সদস্যের ইসলাম ধর্ম গ্রহণ কে হচ্ছেন রাষ্ট্রপতি জানা যাবে মঙ্গলবার বিশ্ব হাত গুটিয়ে বসে থাকলে আরেকটি রোহিঙ্গা গণহত্যা হবে: জাতিসঙ্ঘ ১০ দফা আদায়ে ব্যর্থ হলে বাংলাদেশ ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত হবে: মির্জা ফখরুল বহিষ্কৃত নেতার সমাবেশে জেলা সভাপতি: উজ্জীবিত নেতাকর্মীরা
অমর একুশে গ্রন্থ মেলার উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

অমর একুশে গ্রন্থ মেলার উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

????????????????????????????????????

????????????????????????????????????

????????????????????????????????????

আমার সুরমা ডটকম : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ঘোষণার মধ্য দিয়ে পর্দা উঠল বাঙালির প্রাণের মেলা অমর একুশে গ্রন্থমেলার। আজ সোমবার বিকাল ৪টা ৪০ মিনিটে বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বক্তব্য শেষে মেলার উদ্বোধন ঘোষণা করেন তিনি। আগামী ২৯ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত প্রতিদিন বিকাল ৩টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত মেলা উন্মুক্ত থাকবে। এছাড়া ছুটির দিনগুলোতে বেলা ১১টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত মেলা চলবে। মেলায় বাংলা একাডেমি প্রকাশিত বই ৩০ শতাংশ কমিশনে এবং অন্যান্য প্রতিষ্ঠান ২৫ শতাংশ কমিশনে বই বিক্রি করবে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, এ গ্রন্থমেলাকে কেন্দ্র করে দেশের নানাপ্রান্তের মানুষ এবং প্রবাসী বাঙালিদের বিপুল সমাগম ঘটে। এই মেলা এখন পরিণত হয়েছে বৃহত্তর বাঙালির মিলনমেলায়।
ব্ক্তৃতাকালে প্রধানমন্ত্রী শিক্ষার্থী থাকার দিনগুলোতে বইমেলা ঘুরে দেখার আনন্দের কথা তুলে ধরেন। নিয়েমের কড়াকড়িতে এখন আর ছাত্রজীবনের মতো বইমেলায় ঘুরে বেড়ানোর সুযোগ পান না বলে আক্ষেপ করেন তিনি। প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘কবে আবার মুক্ত হতে পারব, ঘুরে বেড়াতে পারব…।’
গত বছরের তুলনায় এবারের মেলার পরিসর দ্বিগুণ। তার ওপর অধিবর্ষের (লিপ ইয়ার) কারণে এবারের ফেব্রুয়ারি মাসে যোগ হয়েছে বাড়তি একদিন। ফলে ৭২ সাল থেকে চলে আসা বৃহত্তর বাঙালির এ মিলনমেলা এবার পরিসর ও ব্যাপ্তিতে স্মরণকালের সবচেয়ে বড়।
বড় আয়োজনের মেলায় নিরাপত্তা আয়োজনও বড়। চার স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থায় ঘেরা মেলা প্রাঙ্গন। সন্ত্রাসী-জঙ্গীদের হাত থেকে মেলায় আগত দর্শনার্থী, লেখক ও প্রকাশকদের রক্ষায় চলছে কড়া নজরদারি। এ বছর চার লাখ ৭৮ হাজার বর্গফুটের পরিসরে আয়োজিত বইমেলায় শিশুদের বাড়তি জায়গা দিতে শিশুকর্নার বাংলা একাডেমি থেকে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আয়োজন করা হয়েছে।
এবার সাড়ে চারশ’ প্রকাশনা সংস্থা বইয়ের পসরা সাজিয়েছে। বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণে ৮২টি ও সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশে ৩২০টি প্রকাশনা প্রতিষ্ঠানকে স্টল দেয়া হয়েছে। গত বছর এ সংখ্যা ছিল ৩৫১। মেলায় বাংলা একাডেমিসহ ১৪টি প্রকাশনা প্রতিষ্ঠানের থাকছে ১৫টি প্যাভিলিয়ন। এছাড়া ৯২টি লিটল ম্যাগাজিনের জন্য রয়েছে আলাদা কর্নার। এবারও একাডেমির নজরুল মঞ্চে এবং সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে নতুন বইয়ের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানের ব্যবস্থা হয়েছে। আর মেলার দুই অংশেই ওয়াই-ফাই সুবিধা থাকবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2017-2019 AmarSurma.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: