বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ০১:৩৬ অপরাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
প্রতিনিধি আবশ্যক, অনলাইন পত্রিকা আমার সুরমা ডটকমের জন্য প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন : ০১৭১৮-৬৮১২৮১, ০১৬২৫-৬২৭৬৪৩
আগামীকাল ভাটিপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের উপনির্বাচন-লড়াই হবে দ্বিমুখি : জয়ের ব্যাপারে আশাবাদি সবাই

আগামীকাল ভাটিপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের উপনির্বাচন-লড়াই হবে দ্বিমুখি : জয়ের ব্যাপারে আশাবাদি সবাই

47 copy

মুহাম্মদ আব্দুল বাছির সরদার : আগামীকাল ভাটিপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের উপনির্বাচনকে কেন্দ্র করে পুরো ইউনিয়নে চলছে শেষ মূহূর্তের হিসাব-নিকাষ। জয়ের ব্যাপারে সকল প্রার্থীই আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন, তবে লড়াই হবে দ্বিমুখি-এমনটাই মনে করেন এ ইউনিয়ন সচেতন সাধারণ ভোটাররা। কে পড়বেন জয়ের মালা-শেষ সময়ে এসে এমন হিসাব-নিকাষই করছেন প্রার্থী ও তাদের সমর্থকেরা। জানা যায়, সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার ভাটিপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের মৃত্যুতে শূণ্য হওয়া আসনে উপনির্বাচনের ঘোষণার পর থেকেই পুরো ইউনিয়নে চলছে নির্বাচনী আমেজ, প্রার্থী ও ভোটারসহ সর্বস্তরের জনগণের মধ্যে এক ধরণের খুশি বয়ে চলছে।
দিরাই উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার ২নং ভাটিপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদটি মৃত্যুজনিত কারণে শূণ্য হয় গত ২৩ মে ২০১৫ ইংরেজি তারিখে। পরিষদের চেয়ারম্যান মঞ্জুরুল ইসলাম চৌধুরী লিটন গত ২৩ মে ২০১৫ তারিখে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেলে তখন থেকেই পদটি শূণ্য হয়। এ আসনে উপনির্বাচন হবে কি না, নাকি ভারপ্রাপ্ত দিয়ে বাকি দিনগুলো চলবে, তা নিয়ে এক ধরণের ধোঁয়াশা থাকলেও অবশেষে উপজেলা নির্বাচন কমিশন সেই ধোঁয়াশা কাটিয়ে উপনির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে। তফসিল অনুযায়ি ৩ আগস্ট সোমবার ছিল মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ তারিখ, বাছাই ৪ আগস্ট মঙ্গলবার, প্রত্যাহার ৯ আগস্ট রোববার, প্রতীক বরাদ্দ ১০ আগস্ট সোমবার ও নির্বাচন ২৫ আগস্ট মঙ্গলবার।
মনোনয়নপত্র জমাদানের শেষ দিন পর্যন্ত নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করতে ভাটিপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের উপনির্বাচনে মনোনয়নপত্র ৪ জন জমা দিয়ে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন, তারা হলেন সাবেক চেয়ারম্যান মঞ্জরুল ইসলাম চৌধুরী লিটনের আপন ভাই জাহেদুল ইসলাম চৌধুরী জাহেদ (অটোরিকসা), সুহাদ চৌধুরী (তালগাছ), বেলাল আহমদ (টেবিলফ্যান) ও সুমন্ত চন্দ্র দাস (ঢোল)। ভাটিপাড়া ইউনিয়নে মোট ভোটার সংখ্যা ১২ হাজার ৮৬৮ জন, এরমধ্যে পুরুষ ৬ হাজার ৪৮৮ জন ও নারী ৬ হাজার ৩৮০ জন বলে জানান দিরাই উপজেলা নির্বাচন অফিসের কর্মকর্তা মোঃ হাফিজুর রহমান।
এদিকে ইউনিয়নের উপনির্বাচনে ৯টি ভোট কেন্দ্রে ২৬টি বুথে ভোটগ্রহণ করা হবে। এজন্য ৯ জন প্রিজাইডিং কর্মকর্তা, ২৬ জন সহকারি কর্মকর্তা ও ৫২ জন পোলিং অফিসার নিয়োগ দেয়া হয়েছে। এছাড়া নির্বাচনে আইন-শৃঙ্খলার পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে পুলিশ, র‌্যাব, আনসার, বিজিবিসহ স্টাইকিং ফোর্সও মোতায়েন থাকবে বলে জানিয়েছেন দিরাই উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোঃ হাফিজুর রহমান। তিনি আরও জানান, নির্বাচনকে সুষ্ঠ ও শান্তিপূর্ণভাবে পালন করতে আমাদের যাবতীয় প্রস্ততি সম্পন্ন হয়েছে। আশা করি নির্বাচন সকাল ৯টা থেকে বিরতিহীনভাবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত চলবে। উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, ইউনিয়নের কুঁচিরগাঁও কেন্দ্রে ১ হাজার ১৪৫ ভোট রয়েছে, আলীনগরে ১ হাজার ৪১২ ভোট, পঞ্চগ্রাম ভাটিপাড়া মাদরাসায় ১ হাজার ৪৫২ ভোট, ভাটিপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ১ হাজার ১৮৩ ভোট, মধুরাপুর মাদরাসায় ১ হাজার ৩৮২ ভোট, মধুরাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ১ হাজার ৫৪২ ভোট, ধলকুতুব সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ১ হাজার ৬৫ ভোট, দত্তগ্রাম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ১ হাজার ৮৭১ ভোট ও শরীফপুর সরকারি প্রাথমকি বিদ্যালয়ে ১ হাজার ৮১৬ ভোট রয়েছে।
অন্যদিকে ভাটিপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে প্রার্থীদের মধ্যে ভোটের লড়াই হবে দ্বিমুখি বলে জানিয়েছেন সচেতন ভোটারমহল। তারা মনে করেন, সুষ্ঠু ও অবাধ এবং নিরপেক্ষ ভোট হলে টেবিলফ্যান প্রতীকের বেলাল আহমদ ও তালগাছ প্রতীকের সুহাদ চৌধুরীর মধ্য হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হবে। কারো মতে, ভোটযুদ্ধ হবে ত্রিমুখি। টেবিলফ্যান ও তালগাছ প্রতীকের সাথে অটোরিকসা প্রতীকের জাহেদুল ইসলাম চৌধুরী জাহেদও প্রতিদ্বন্দ্বীতায় থাকতে পারেন।
ইউনিয়নের ভাটিপাড়া গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক আবুল খায়ের জানান, মূল প্রতিদ্বন্দ্বীতা হবে বেলাল আহমদ ও সুহাদ চৌধুরীর মধ্যে, তবে জাহেদ চৌধুরীর অবস্থানও ভালো। একই গ্রামের ডাক্তার আবুতালিব জানান, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ ভোট হলে স্বতন্ত্রপ্রার্থী সুহাদ চৌধুরী ও বিএনপিপ্রার্থী বেলাল আহমদের মধ্যে হবে মূল প্রতিদ্বন্দ্বীতা, আওয়ামীলীগপ্রার্থী জাহেদ চৌধুরী ৩য় স্থানে থাকতে পারেন। তার আশঙ্কা, নির্বাচনে কারচুপি হতে পারে। তবে টেবিলফ্যান প্রতীকের প্রার্থী বেলাল আহমদের জয়ের ব্যাপারে সম্ভাবনা বেশি। সাবেক জনপ্রতিনিধি নবাব তালুকদার জানান, ৩ জনের অবস্থাই মোটামুটি ভালো, তবে মূল প্রতিদ্বন্দ্বীতা হবে টেবিলফ্যান ও তালগাছ প্রতীকের প্রার্থীদের মধ্যে। মাওলানা জাকির হোসাইন জানান, ভোটারদের আলোচনা সাপেক্ষে জানতে পেরেছি মূল প্রতিদ্বন্দ্বীতা হতে পারে বেলাল আহমদ ও সুহাদ চৌধুরীর মধ্যে, তবে মাঠ পর্যায়ে সকলের অবস্থানই ভালো।
ভাটিপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের উপনির্বাচনে স্বতন্ত্রপ্রার্থী সুহাদ চৌধুরী জানান, ইউনিয়নে ৪টি ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্রের তালিকা উপজেলা প্রশাসনকে দেয়া হয়েছে, এসব কেন্দ্রে ভোট কারচুপি হতে পারে বলে তিনি আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন। কেন্দ্রগুলো হচ্ছে মধুরাপুর, ভাটিপাড়া মাদরাসা, শরীফপুর ও আলীনগর।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2017-2019 AmarSurma.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: