বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ১২:০৪ পূর্বাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
প্রতিনিধি আবশ্যক, অনলাইন পত্রিকা আমার সুরমা ডটকমের জন্য প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন : ০১৭১৮-৬৮১২৮১, ০১৬২৫-৬২৭৬৪৩
‘চায়ের কাপে ঝড় উঠেছে দিরাইয়ে লিলু হত্যাকাণ্ড’, দাফন সম্পন্ন: মামলা দায়ের

‘চায়ের কাপে ঝড় উঠেছে দিরাইয়ে লিলু হত্যাকাণ্ড’, দাফন সম্পন্ন: মামলা দায়ের

মুহাম্মদ আব্দুল বাছির সরদার: চায়ের কাপ থেকে শুরু করে এ এলাকার প্রশাসনের সর্বোচ্চ কর্তা ব্যক্তি পর্যন্ত, ঘটনাস্থল দিরাই থেকে জেলার সর্বত্র একই আলোচনা দিরাইয়ে ‘সুনামগঞ্জ-২ (দিরাই-শাল্লা) আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও সুনামগঞ্জ জেলা বিএনপির আহ্বায়ক নাছির উদ্দিন চৌধুরীর বাসায় রহস্যজনক ডাকাতি ও বাসার তত্ত্বাবধায়ক লিলু মিয়া হত্যাকাণ্ড।’ ঘটনাটি প্রকাশ হওয়ার পর থেকে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত সকল বয়সী ও শ্রেণি-পেশার মানুষের মুখে একটি বিষয়ই বার বার উচ্চারিত হচ্ছে-কী উদ্দেশ্য নিয়ে এমন কাণ্ড ঘটানো হলো? আর এ বিষয়ে এখন পর্যন্ত কোন ক্লু না পেয়ে অন্ধকারে রয়েছে পুলিশ। ঘটনাটি আদৌ রাজনৈতকি প্রতিহিংসা কি না বা কিলিং মিশনের অংশ কি না, তাও এখন পর্যন্ত সুস্পষ্ট হতে পারেনি পুলিশ। আর এই মর্মান্তিক ও ন্যাক্কারজনক হত্যাকাণ্ডের শিকার লিলু মিয়াকে গতকাল সোমবার চোখের জল ভাসিয়ে চিরদিনের জন্য বিদায় দিয়ে তার গ্রামের বাড়িতে দাফন করা হয়েছে।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, ৩১ ডিসেম্বর শনিবার দিবাগত রাতের কোন এক সময়ে ‘সুনামগঞ্জ-২ (দিরাই-শাল্লা) আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও সুনামগঞ্জ জেলা বিএনপির আহ্বায়ক নাছির উদ্দিন চৌধুরীর বাসায় রহস্যজনক এ ডাকাতির ঘটনাটি ঘটে। ১লা জানুয়ারি রোববার সকালের দিকে খবর পেয়ে নাছির উদ্দিন চৌধুরী সুনামগঞ্জ থেকে দিরাই এসে বাসার পেছনের দরজা ও গেইট ভাঙা দেখতে পান। পরে দিরাই থানায় খবর দেয়া হলে পুলিশ এসে ভেতরে প্রবেশ করে বাসার আসবাবপত্র তছনছ দেখতে পায়। এ সময় বাসায় থাকা কেয়ারটেকার উপজেলার কুলঞ্জ ইউনিয়নের ইসলামপুর গ্রামের সিদ্দিক মিয়ার ছেলে লিলু মিয়াকে (১৬) পাওয়া যাচ্ছিল না। দিরাই থানা পুলিশ সূত্রে জানা যায়, বাসা থেকে ১টি লাইসেন্সকৃত রাইফেল, ১টি পিস্তল, ১টি ল্যাপটপ, মোবাইল ফোন, স্বর্ণালংকারসহ বিভিন্ন আসবাবপত্র ডাকাতরা নিয়ে যায়। খবর পেয়ে তাৎক্ষণিকভাবে দিরাই থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে বাসা ঘেরাও করে রেখে বিভিন্ন থানায় মেসেজ পাঠায়। রোববার আড়াইটার দিকে সদর উপজেলার মোহনপুর ইউনিয়নের শান্তিপুর ডাকার হাওরে লিলু মিয়ার লাশ পাওয়া যায় বলে জানান দিরাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ আব্দুল জলিল।
সূত্র জানায়, লিলু মিয়ার লাশ ময়না তদন্ত শেষে গতকাল সোমবার বিকেল সাড়ে ৪টায় তার গ্রামের বাড়িতে দাফন করা হয়। এ ঘটনায় নাছির উদ্দিন চৌধুরীর ছোট ভাই মঈন উদ্দিন চৌধুরী মাসুক মিয়া বাদি হয়ে অজ্ঞাতনামা আসামি দিয়ে দিরাই থানায় মামলা দায়ের করেছেন। মামলা নং-০১, তারিখ ০১/০১/২০১৭ ইংরেজি।
মামলার বাদি মঈন উদ্দিন চৌধুরী মাসুক মিয়া জানান, আমরা যেহেতু কাউকে সন্দেহ করতে পারছিনা, তাই মামলায় অজ্ঞাতনামা আসামি দিয়েছি। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ঘটনাটি অবশ্যই পরিকল্পিতভাবে করা হয়েছে এবং এর সাথে যারা জড়িত, তারা জানতে পেরেছে যে, আমরা ঐদিন কেউই বাসায় ছিলাম না। তিনি আরো জানান, নিহত লিলু মিয়ার মাথা, ঘাড় ও মুখের বামপাশে আঘাত রয়েছে।
সুনামগঞ্জ-২ (দিরাই-শাল্লা) আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও সুনামগঞ্জ জেলা বিএনপির আহ্বায়ক নাছির উদ্দিন চৌধুরীর প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে তিনি বলেন, কে বা কারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে, আমরা কেউই জানিনা, এ ঘটনায় আমি ভীষণভাবে মর্মাহত হয়েছি।
দিরাই থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এবিএম দেলোয়ার হোসেন জানান, নিহত লিলু মিয়ার ডান কাঁধ ও মাথায় আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে, এখন পর্যন্ত কেউ গ্রেফতার হয়নি। আমরা বিষয়টি অত্যন্ত গুরুত্ব সহকারে দেখছি।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2017-2019 AmarSurma.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: