মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ০৩:৫৯ পূর্বাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
প্রতিনিধি আবশ্যক, অনলাইন পত্রিকা আমার সুরমা ডটকমের জন্য প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন : ০১৭১৮-৬৮১২৮১, ০১৬২৫-৬২৭৬৪৩
চুনারুঘাটে শিক্ষকের ফোনে কল দিয়ে ৭ম শ্রেণির ছাত্রীকে জীবন নষ্ট করার হুমকি

চুনারুঘাটে শিক্ষকের ফোনে কল দিয়ে ৭ম শ্রেণির ছাত্রীকে জীবন নষ্ট করার হুমকি

চুনারুঘাট প্রতিনিধিঃ চুনারুঘাট উপজেলার রাজার বাজার সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণির ছাত্রীকে বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষকের ফোনে কল দিয়ে জীবন নষ্ট করার হুমকি দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন ছাত্রীর বাবা। অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উক্ত বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণির ছাত্রী রোকসানা আক্তার (১২) রোল নং ১ বিদ্যালয়ে আসা-যাওয়ার পথে দীর্ঘ দিন ধরে বিভিন্ন জায়গায় ওৎ পেতে থেকে, রোকসানা যে যানবাহনে (টমটম) চলাচল করে সে যানবাহনের যাত্রী সেজে অশালিন ও অশ্লীল ভাষায় উত্ত্যক্ত করে আসছে উপজেলার আলীরাজাপুর গ্রামের মির্জা আলীর পুত্র জুয়েল মিয়া (২২), আবুল কালামের পুত্র শুভ মিয়া (২১), মৃত রহিম উদ্দিনের পুত্র আরিফ মিয়া (২২), আঃ রউফের পুত্র মানিক মিয়া (২২), আশ্রাবপুর গ্রামের সিরাজ মিয়ার পুত্র রিমান মিয়া (২৩) ও বাগীয়ার গাওর হিরন মিয়ার পুত্র মোসাহিদ মিয়া (২১)। এ নিয়ে ওই ছাত্রীর বাবা এলাকার মুরুব্বিয়ানদের নিয়ে সালিশ বৈঠক করেও কোনো সুফল পাননি। বাধ্য হয়ে তিনি তার মেয়ের স্কুল যাতায়াতের জন্য মাসুয়ারা হিসাবে একটি টমটম রিজার্ভ করে দেন। এতেও তিনি খুব একটা সফলতা পাননি। অভিযুক্তরা মোটরসাইকেল যোগে তার মেয়ে পিছু নিয়ে নানান ভাষায় তার মেয়েকে উত্ত্যক্ত করেই চলে। গত ১৪ অক্টোবর টিফিন আওয়ারে রোকসানা বিদ্যালয়ের গেইটের সামনের দোকান থেকে আচার কিনলে ওই ছেলেরা তার হাত থেকে জোরপূর্বক আচার গুলো ছিনিয়ে নিয়ে ফিল্মি স্টাইলে হাসাহাসি করতে থাকে। পরের দিন রোকসানা টমটমে থাকাকালীন সময়ে তারা তার পথ রোধ করে আটকিয়ে ছবি তুলে তা ফেইসবুকে ছেড়ে তার মানহানি ঘটাবে বলে হুমকি দেয়। ১৭ অক্টোবর বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক জাহাঙ্গীর আলমের ফোনে অজ্ঞাত ব্যক্তি অচেনা নাম্বার থেকে কল করে রোকসানার সাথে কথা বলতে চায়। শিক্ষক রোকসানার হাতে মোবাইল দিলে কলার রোকসানাকে ইতিমধ্যে যা হয়েছে তার জন্য কোনো অভিযোগ না করার জন্য বলে এবং অভিযোগ করলে তার জীবন নষ্ট করে ফেলবে হুমকি দেয়। এর বিস্তারিত জেনে, গত ১৮ অক্টোবর রোকসানার বাবা উপজেলার খেতামারা গ্রামের মৃত আঃ খালেকের পুত্র আঃ মতিন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের নিকট তার মেয়ের পড়াশুনা ও অভিযুক্তদের দ্বারা তার মেয়ের যেন কোনো ক্ষতি না হয় সেই ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য লিখিত আবেদন করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2017-2019 AmarSurma.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: