শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ০১:১০ অপরাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
প্রতিনিধি আবশ্যক, অনলাইন পত্রিকা আমার সুরমা ডটকমের জন্য প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন : ০১৭১৮-৬৮১২৮১, ০১৬২৫-৬২৭৬৪৩
দক্ষিণ সুনামগঞ্জের বিপনী বিতানগুলোতে শেষ মূহুর্তে চলছে রমরমা বেচাকেনা

দক্ষিণ সুনামগঞ্জের বিপনী বিতানগুলোতে শেষ মূহুর্তে চলছে রমরমা বেচাকেনা

সামিউল কবির, দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থেকে: দক্ষিণ সুনামগঞ্জ বিপণী বিতানগুলোতে শেষ মুহুর্তে চলছে রমরমা বেচাকেনা। বিপনী বিতানগুলোতে পড়েছে কেনাকাটার ধুম। উপজেলাটির প্রধানতম যেমন পাগলা,পাথারিয়া, সদরের শান্তিগঞ্জ বাজারের বিপণী বিতানগুলোতে রমজানের প্রথম সপ্তাহ থেকে মন্দাভাব থাকলেও সময় ঘনিয়ে আসায় তা একেবারে নেই বললেই চলে। শেষ সময়ে এসে বিক্রেতারাও রয়েছেন ক্রেতাদের পছন্দসই পোশাক দিতে ব্যতিব্যস্ত। দম ফেলারও যেন সময় নেই তাদের। তবে এবারের ঈদের বাজারে দেশী পোশাকের চেয়ে ভারতীয় পোশাকের আধিক্য বেশি। ভারতীয় পোশাকেই ক্রেতাদের ঝোঁক বেশী। যার ফলে দেশে তৈরী পোশাকের বাজার অনেকটা হারিয়ে যেতে বসেছে। তবে অনেক ক্রেতা আবার দেশী পোশাকই ক্রয় করছেন। ঈদের বাজার করতে আসা ক্রেতারাও পছন্দসই পোশাক ক্রয় করতে পেরে দারুণ আনন্দিত। শেষ সময়ে ব্যবসা জমজমাট হওয়ায় আনন্দিত ব্যবসায়ীরাও। সরেজমিন উপজেলার সদর শান্তিগঞ্জ বাজারের, সমবায় মার্কেটের বিখ্যাত কাশফুল শাড়ী ঘর, মৌ ফ্যাশন, নিপ্র ফ্যাশন, সাজ্জাদ মার্কেটের মা ফ্যাশন এন্ড গ্যালারি, রেজিয়া ফ্যাশনের মতো বিভিন্ন বিপনী ঘরগুলোতে ঘুরে দেখা গেছে যে পড়েছে খুব বেঁচাকেনার ধুম। সাপ্তাহিক ছুটির দিন হওয়ায় অন্যান্য দিনের তুলনায় এদিন ক্রেতাদের সংখ্যা ছিলো বেশি। যার ফলে হিমশিম খেতে হয়েছে ব্যবসায়ীদের। ক্রেতাদের পছন্দের পোশাক দিতে ব্যস্ত ব্যবসায়ীরা। ক্রেতারাও পছন্দের পোশাক পেলে ক্রয় করছেন নয়ত চলে যাচ্ছেন অন্যত্র। তবে এবারের বাজারে অন্যান্যবারের তুলনায় ভারতীয় পোশাকের আধিক্য বেশি। ভারতীয় পোশাকেই ছেঁয়ে গেছে বাজার। যার ফলে এসব পোশাকের ভিড়ে হারিয়ে গেছে দেশে তৈরী পোশাকের বাজার। অনেকে আবার দেশি পোশাক ক্রয় করছেন তবে তা তুলনামূলক কম। তবে এদিক দিয়ে মেয়েদের তুলনায় ছেলেদের সংখ্যাই বেশি। মেয়েরা বিভিন্ন নাম ও রং ঢংয়ের ভারতীয় পোশাক কিনলেও ছেলেরা কিনছেন দেশে তৈরী পাঞ্জাবী, শার্ট, টি-শার্ট ও প্যান্ট। ব্যবসায়ী সাজাদ, খালেদ হাসান, মারুফ হোসেন মুজিব, চাকুরীজীবী জুনেদ, আমিনুল বলেন, দেশী পণ্য কিনে হও ধন্য- সেই মন্ত্রে আমরা উদ্বুদ্ধ হয়ে দেশী পোশাক ক্রয় করেছি। পাঞ্জাবী, শার্ট ও প্যান্ট কিনেছে। তারা বলেন, আমরা যদি আমাদের দেশের পণ্য ক্রয় না করি তাহলে দেশী পণ্য বিক্রি হবেনা এবং দেশী পণ্যের কদর কেউ বুঝবে না। তাই আমাদের সকলের উচিত, বিদেশী পণ্যের পাশাপাশি দেশী পণ্যের দিকে অধিক গুরুত্ব দিয়ে দেশী পণ্য ক্রয় করা। আর মেয়েরা বলছেন, গুণগত মানের দিক দিয়ে দেশী পণ্যের চেয়ে বিদেশী পণ্যের মান বেশী ও দেখতে সুন্দর তাই আমরা এরকম পোশাক ক্রয় করছে। তবে অনেক ক্ষেত্রে দেশী পণ্যের চেয়ে বিদেশী পণ্যের মান ভালো থাকায় ও দেখতে আকর্ষণীয় হওয়ায় এগুলোর প্রতি অনেকের নজর একটু বেশি।

এদিকে শেষ সময়ে এসে বেচাকেনার ধুম পড়েছে কসমেটিক্স দোকানগুলোতেও। মেয়েরা পছন্দের প্রসাধনী ক্রয় করতে ভিড় করছেন কসমেটিক্স দোকানগুলোতে। যার ফলে শেষ সময়ে এসে ক্রেতাদের ভিড়ে উৎফুল্ল কসমেটিক্স ব্যবসায়ীরাও। ক্রেতাদের পছন্দের প্রসাধনী সামগ্রী দিতে কাপড় ব্যবসায়ীদের মত হিমশিম খেতে হচ্ছে তাদেরও। পাগলা বাজারের বিভিন্ন কসমেটিকস দোকালগুলোতে এরকম ভীড় দেখতে পাওয়া গেছে। এদিকে শান্তিগঞ্জ বাজারের জহুর আলী মার্কেটের কসমেটিকস ব্যবসায়ী রেদুয়ান বলেন রোজার প্রথম দিকে বৃষ্টিসহ পর্যাপ্ত পরিমাণ রেমিটেন্স না আসায় ক্রেতাদের সংখ্যা অনেকটা কম থাকায় আমরা আশাহত ছিলাম তবে এখনকার বাজারের এই অবস্থানে আমরা খুশি। আশা করি বাকী শেষমুহুর্তে এসে আরোও ভালো বেঁচাকেনা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2017-2019 AmarSurma.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: