শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:১৮ পূর্বাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
প্রতিনিধি আবশ্যক, অনলাইন পত্রিকা আমার সুরমা ডটকমের জন্য প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন : ০১৭১৮-৬৮১২৮১, ০১৬২৫-৬২৭৬৪৩
সংবাদ শিরোনাম :
১১ সাংবাদিক নেতার ব্যাংক হিসাব তলব, সম্পাদক পরিষদ ও আ স ম আবদুর রবের গভীর উদ্বেগ ইনকিলাব সাংবাদিকের ফুফুর দাফন সম্পন্ন ইন্দোনেশিয়ায় কার্গো বিমান বিধ্বস্ত, নিখোঁজ ৩ অনলাইন সংবাদপোর্টাল নিবন্ধন চলমান প্রক্রিয়া: তথ্যমন্ত্রী বিএনপির উপদেষ্টা ফজলুল হক আছপিয়ার ইন্তেকাল আমরা দরিদ্রদের পাশে আছি: তালেবান চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা নিয়ে যা বললেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী দেশ ও জাতির কল্যাণে জমিয়তের নেতা-কর্মীদের ভূমিকা রাখতে হবে: জমিয়ত একাদশ-দ্বাদশের দুই পরীক্ষার মূল্যায়নে এইচএসসির ফল হবে: শিক্ষামন্ত্রী শিক্ষা কার্যক্রমকে সময়োপযোগী করতে গুরুত্বারোপ প্রধানমন্ত্রীর

প্রবীণ সাংবাদিক মো. আব্দুর রহিমের ইন্তেকাল

দাফন সম্পন্ন: ইনকিলাব সম্পাদক, সাংবাদিক সংগঠন ও বিভিন্ন মহলের শোক

আমার সুরমা ডটকম:

দৈনিক ইনকিলাবের সিনিয়র সাংবাদিক মো. আব্দুর রহিম আর নেই। গতকাল শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৪টায় ঢাকার ল্যাব এইড হাসপাতালে টিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি ইন্তেকাল করেন। ইন্নালিল্লাহি ওয়াইন্না ইলাইহি রাজিউন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৫ বছর। তিনি স্ত্রী, ৩ মেয়ে, ৪ ভাই ও ৫ বোনসহ বহু আত্মীয়-স্বজন রেখে গেছেন। প্রবীণ সাংবাদিক আব্দুর রহিমের মৃত্যুতে দৈনিক ইনকিলাব ভবন, জাতীয় প্রেসক্লাব ও ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে শোকের ছায়া নেমে আসে। তার সহকর্মীরা ছুটে যান হাসপাতালে; নামাজে জানাজায় শরীক হন। গতকাল নামাজে জানাজার পর রাজধানীর শাহাজাহানপুর কবরস্থানে দাফন করা হয়।

দেশের গণমানুষের মুখপত্র দৈনিক ইনকিলাবের প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই মো. আব্দুর রহিম কর্মরত ছিলেন। কর্মজীবনে ইনকিলাবের ভালোমন্দ, আদর্শনীতি ও চলার পথে নিজেকে জড়িয়ে ফেলেছিলেন। নীতিবান সাংবাদিক হিসেবে সদালাপী এবং ব্যক্তিজীবনে ছিলেন বন্ধুবৎসল। পেশাগত দায়িত্ব পালনে সাংবাদিক হিসেবে দেশের ইসলামী ধারার বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, পীর-মাশায়েখ ও আলেম সমাজে ব্যাপক সমাদৃত ছিলেন।

আব্দুর রহিম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২২ জুলাই ধানমন্ডির ল্যাব এইড হাসপাতালের কোভিড-১৯ সেকশনে আইসিইউতে ভর্তি হয়েছিলেন। মরহুম আব্দুর রহিমের স্ত্রী ও ২ মেয়েও করোনায় আক্রান্ত। গতকাল রাত সাড়ে ৯টায় নগরীর খিলগাঁও তিলপাপাড়া জামে মসজিদে মরহুমের নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। জানাজায় তার শুভাকাক্সক্ষী, সহকর্মী, সাংবাদিক নেতারা ছাড়াও বিভিন্ন গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ শরীক হন। রাতেই শাহজাহানপুর কবরস্থানে তার লাশ দাফন করা হয়েছে। উল্লেখ্য, মরহুমের লাশ দাফনে সার্বিক সহযোগিতা করে কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশন।

সাংবাদিক আব্দুর রহিম নরসিংদী জেলার রায়পুর থানার তুলাতলি গ্রামে এক সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতার নাম মরহুম আব্দুর রশিদ। কর্মজীবনে প্রথম তিনি রাজধানীর মগবাজার টিএন্ডটি উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষকতা করেন। দৈনিক ইনকিলাবের প্রতিষ্ঠাতা ও জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের প্রতিষ্ঠাতা আলহাজ মাওলানা এম এ মান্নানের (রহ.) অনুপ্রেরণায় আব্দুর রহিম দৈনিক ইনকিলাবে শুরুতেই সাংবাদিক হিসেবে যোগদান করেন। বিগত কয়েক বছর যাবত আব্দুর রহিম জটিল রোগে ভুগছিলেন।

আব্দুর রহিমের পরিবারের পক্ষ থেকে তার রূহের মাগফিরাত কামনায় দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে। সাংবাদিক আব্দুর রহিমের ইন্তেকালে ইনকিলাব সম্পাদক এ এম এম বাহাউদ্দীন গভীর শোক প্রকাশ করে মরহুমের রূহের মাগফিরাত কামনা এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেছেন। সাংবাদিক আব্দুর রহিমের ইন্তেকালে জাতীয় প্রেসক্লাব, ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি, বিএফইউজে, ডিইউজে, ডিউজের ইনকিলাব ইউনিট এবং বিভিন্ন ইসলামী দলের নেতৃবৃন্দ পৃথক পৃথক বিবৃতিতে গভীর শোক প্রকাশ করে তার রূহের মাগফিরাত কামনা এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেছেন। বাদ মাগরিব ইনকিলাব ভবনে দৈনিক ইনকিলাব ইউনিটের উদ্যোগে মরহুম আব্দুর রহিমের রূহের মাগফিরাত কামনা করে বিশেষ দোয়া কামনা করা হয়। সাংবাদিক কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা।

প্রবীণ সাংবাদিক মো. আব্দুর রহিমের ইন্তেকালে বিভিন্ন মহলের শোক

দৈনিক ইনকিলাবের সিনিয়র রিপোর্টার প্রবীণ সাংবাদিক মো.আব্দুর রহিমের ইন্তেকালে সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ এবং বিভিন্ন ইসলামী দলের নেতৃবৃন্দ পৃথক পৃথক বিবৃতিতে গভীর শোক প্রকাশ এবং তার রূহের মাগফিরাত কামনা করে শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেছেন। বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, মরহুম আবদুর রহিম একজন নিষ্ঠাবান সাংবাদিক হিসেব দায়িত্ব পালন করেছেন। বিভিন্ন আন্দোলন সংগ্রামে তিনি জীবনের ঝুঁকি নিয়ে পেশাগত দায়িত্ব পালন করেছেন।

বাংলাদেশের সাংবাদিকতার অঙ্গণে তার অবদান অবিস্মরণীয় হয়ে থাকবে। শিক্ষাবান্ধব ও ধর্ম অনুরাগী আব্দুর রহিমের ইন্তেকালে আমরা শোকাহত। আল্লাহ তায়ালা তাকে জান্নাতুল ফেরদাউস নসিব করুন। মহান আল্লাহপাক তাকে ক্ষমা করে তার সকল নেকআমল কবুল করুন। আমীন।

মরহুম আব্দুর রহিমের ইন্তেকালে যেসব নেতৃবৃন্দ গভীর শোক প্রকাশ করে বিবৃতিতে দিয়েছেন তারা হচ্ছেন, জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি ফরিদা ইসয়াসমিন ও সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াস খান, ডিআরইউ’র সভাপতি মোরসালিন নোমান ও সাধারণ সম্পাদক মশিউর রহমান খান, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর আমীর মুফতী সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম পীর সাহেব চরমোনাই ও মহাসচিব প্রিন্সিপাল মাওলানা ইউনুছ আহমাদ, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শায়খুল হাদিস হাফেজ মাওলানা মনসুরুল হাসান রায়পুরী ও মহাসচিব শায়খুল হাদিস হাফেজ মাওলানা ড. গোলাম মহিউদ্দিন ইকরাম, বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের আমীর শায়খুল হাদীস আল্লামা ইসমাইল নুরপুরী, নায়েবে আমীর মাওলানা রেজাউল করিম জালালী, যুগ্মমহাসচিব মাওলানা আব্দুল আজীজ, অফিস ও সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা আজিজুর রহমান হেলাল, খেলাফতে ইসলামী বাংলাদেশের মহাসচিব, গাজীপুর খালেকিয়া মাদরাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা ফজলুর রহমান, বাংলাদেশ কওমি মাদরাসা শিক্ষাবোর্ড-বেফাকের মহাসচিব মাওলানা মাহফুজুল হক, খাদেমুল ইসলাম বাংলাদেশের আমীর, গওহরডাঙ্গা মাদরাসার মোহতামিম ও কওমি মাদরাসা শিক্ষা বোর্ড গওহরডাঙ্গার সভাপতি আল্লামা মুফতি রুহুল আমীন, খেলাফত মজলিসের আমীর প্রিন্সিপাল মাওলানা মোহাম্মদ ইসহাক ও ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব এডভোকেট জাহাঙ্গীর হোসাইন, বাংলাদেশ নেজামে ইসলাম পার্টির সভাপতি মুফতি মুজিবুর রহমান, নির্বাহী সভাপতি ও জাতীয় সংহতি মঞ্চের প্রধান সমন্বয়কারী মাওলানা একে এম আশরাফুল হক, ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান মাওলানা আবুল হাসানাত আমিনী ও মহাসচিব মুফতী ফয়জুল্লাহ, জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের সহ-সভাপতি মাওলানা আব্দুর রব ইউসুফী, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম ঢাকা মহানগরী ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাওলানা আব্দুল কুদ্দুস ও সাধারণ সম্পাদক মাওলানা মতিউর রহমান গাজীপুরী, জাতীয় ওলামা মাশায়েখ আইম্মা পরিষদের সভাপতি আল্লামা নূরুল হুদা ফয়েজী, সাধারণ সম্পাদক মাওলানা গাজী আতাউর রহমান, দক্ষিণ সভাপতি মাওলানা ইমতিয়াজ আলম, উত্তর সভাপতি অধ্যক্ষ শেখ ফজলে বারী মাসউদ, জাতীয় তাফসীর পরিষদের চেয়ারম্যান মাওলানা আহমদ আবদুল কাইয়ূম। বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের চেয়ারম্যান ও মহাসচিব জননেতা আল্লামা এম এ মান্নান ও এম এ মতিন, মরহুমের মৃত্যুতে তাহরিকে খাতমে নুবুওয়্যাত বাংলাদেশের সম্মানিত আমির আল্লামা মুফতী ড. সাইয়্যেদ মুহাম্মাদ এনায়েতুল্লাহ আব্বাসী ওয়া সিদ্দিকী পীর সাহেব জৈনপুরী হুজুর শোক প্রকাশ করেছেন এবং তার আত্মার মাগফিরাত কামনা করেছেন।

চট্টগ্রাম ব্যুরো জানায়, দৈনিক ইনকিলাবের সিনিয়র সাংবাদিক মুহাম্মদ আব্দুর রহিমের ইন্তেকালে ইসলামিক ফ্রন্ট চেয়ারম্যান ও আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাআতের প্রেসিডেন্ট পীরে কামেল আল্লামা সৈয়দ মুহাম্মদ বাহাদুর শাহ্ মোজাদ্দেদী, ইসলামিক ফ্রন্টের মহাসচিব আল্লামা জয়নুল আবেদীন জুবাইর ও সাংগঠনিক সম্পাদক (চট্টগ্রাম বিভাগ) এইচ এম মুজিবুল হক শুক্কুর, আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাআত চট্টগ্রাম মহানগর, উত্তর ও দক্ষিণ জেলার সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক যথাক্রমে শায়খুল হাদিস আল্লামা রফিক উদ্দীন সিদ্দিকী, আল্লামা এস এম ফরিদ উদ্দীন, আল্লামা হাসান রেজা আলকাদেরী, অধ্যক্ষ এম ইব্রাহীম আখতারী, আল্লামা জাকের আহমদ সিদ্দিকী ও অধ্যাপক সৈয়দ হাফেজ আহমদ।

এছাড়া ইসলামিক ফ্রন্ট চট্টগ্রাম মহানগর, দক্ষিণ ও উত্তর জেলার সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক যথাক্রমে এইচ এম মুজিবুল হক শুক্কুর, স ম হামেদ হোসাইন, মাওলানা ছৈয়দ মুহাম্মদ জসিম উদ্দীন তৈয়বী, এম মহিউল আলম চৌধুরী, স ম শহিদুল হক ফারুকী, মাওলানা রফিকুল ইসলাম নেজামী, ইসলামী ছাত্রসেনার কেন্দ্রীয় সভাপতি এ বি এম আরাফাত মোল্লা সাধারণ সম্পাদক শেখ ফরিদ মজুমদার এবং চট্টগ্রাম মহানগর, উত্তর ও দক্ষিণ জেলার সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক যথাক্রমে কাউসারুল ইসলাম সোহেল, মুহাম্মদ ফরিদুল হক, ইঞ্জিনিয়ার গিয়াস উদ্দীন জাহেদ, রাসেদুল ইসলাম রাসেল ও মিসবাহুল ইসলাম।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2017-2019 AmarSurma.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: