বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১১:১৫ অপরাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
প্রতিনিধি আবশ্যক, অনলাইন পত্রিকা আমার সুরমা ডটকমের জন্য প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন : ০১৭১৮-৬৮১২৮১, ০১৬২৫-৬২৭৬৪৩
সংবাদ শিরোনাম :
এইচএসসির ফল প্রকাশ, পাসের হার ৮৫.৯৫ শতাংশ নিহতের সংখ্যা ৫০০০ ছাড়ালো, তিন মাসের জরুরি অবস্থা জারি তুরস্কে রাজাকার ও বিএনপির লোকদের নিয়ে সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের শোকর‌্যালি পাকিস্তানের সাবেক সামরিক শাসক পারভেজ মোশাররফের মৃত্যু চট্টগ্রাম কলেজের ১৭৫ শিক্ষার্থী ৩ ঘন্টার অভিযানে ডুবোচর থেকে উদ্ধার ফরিদপুরে একই পরিবারে ৫ সদস্যের ইসলাম ধর্ম গ্রহণ কে হচ্ছেন রাষ্ট্রপতি জানা যাবে মঙ্গলবার বিশ্ব হাত গুটিয়ে বসে থাকলে আরেকটি রোহিঙ্গা গণহত্যা হবে: জাতিসঙ্ঘ ১০ দফা আদায়ে ব্যর্থ হলে বাংলাদেশ ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত হবে: মির্জা ফখরুল বহিষ্কৃত নেতার সমাবেশে জেলা সভাপতি: উজ্জীবিত নেতাকর্মীরা
ভারতকে কাঁদিয়ে ফাইনালে ক্যারিবীয়রা

ভারতকে কাঁদিয়ে ফাইনালে ক্যারিবীয়রা

filet20আমার সুরমা ডটকম ডেক্সটি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের দ্বিতীয় সেমিফাইনালে ভারতের দেয়া ১৯৩ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে উইকেট ৩ হারিয়ে জয়ের লক্ষে পোঁছে যায় ক্যারিবীয়রা। এর আগে মুম্বাইয়ের ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে কোহলির ৮৯ রানের ঝড়ো সংগ্রহের উপর ভিত্তি করে ২ উইকেটে ১৯২ রানের পাহাড় সমান স্কোর গড়ে ধোনি বাহিনী। ১৯৩ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে বল ২ বাকি থাকতেই জয় তুলে নেয় ক্যারিবীয়রা। শুরুটা মোটেও ভালো হয়নি ক্যারিবীয়দের। দ্বিতীয় ওভারের প্রথম বলে বোল্ড হয়ে ফিরে গেছেন ক্রিস গেইল। বুমরাহর ইর্য়কার না বুঝেই ব্যাট চালান গেইল। ব্যাটের ফাঁক গলে বল লাগে স্টাম্পে। এরপর তৃতীয় ওভারের শেষ বলে ফিরে যান মারলন স্যামুয়েলস। ৭ বলে ৮ রান করে নেহরার বলে রাহানের তালুবন্দী হন স্যামুয়েলস। এরপর লেন্ডন স্যামুয়েলস ও জনসন চালর্স জুটি চাপে ফেলে দেয় ভারতকে। এই দুইজন পাল্টা আক্রমণ চালায় ভারতীয় বোলারদের উপর। জাদেজা-অশ্বিনদের অসহায় করে দিয়ে মাঠের চারপাশে চার-ছয়ের ফুলঝুড়ি ছোটান তারা। জনসন চালর্স ছিলেন খুবই আক্রমণাত্মক। মাত্র ৩০ বলে অর্ধশতক পূর্ণ করেন এই ব্যাটসম্যান। এরমধ্যে একবার অবশ্য আউট হয়েছিলেন সিমন্স। তবে নো বলের কারণে সে যাত্রায় বেচে যান তিনি। ১৪তম ওভারের প্রথম বলে কোহলির বলে ক্যাচ দিয়ে ফিরে যান ডেঞ্জারম্যান চালর্স। ৩৬ বলে ৫২ রান করেন চার্লস। এরপর আবার আউট হয়েছিলেন সিমন্স। এ যাত্রায়ও নো বলের কারণে বেচে যান সিমন্স। চালর্স আউট হবার পর উইকেটে এসেই ভারতের বোলারদের উপর চড়াও হন আন্দ্রে রাসেল। শেষ পর্যন্ত জয় নিয়েই মাঠ ছাড়েন এই দুই ব্যাটসম্যান। ৫১ বলে ৮৩ রানে অপরাজিত ছিলেন সিমন্স। অপরপান্তে মাত্র ২০ বলে ৪৩ রানে অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়েন আন্দ্রে রাসেল। টস জিতে ভারতকে ব্যাটিংয়ে আমন্ত্রণ জানান স্যামি। ব্যাটিং করতে নেমে প্রথম দুই ওভারে দেখেশুনে খেললেও পরের ওভারগুলোতে স্বরূপে ফিরেন রোহিত শর্মা। প্রথম ৬ ওভারেই দলীয় ৫০ রানের কোটা পার করে ভারত। তৃতীয় ওভারে ক্রেইগ বার্থওয়েটকে দিয়ে শুরু করেন রোহিত। এরপর চার-ছয়ে ক্যারিবীয় বোলারদের অসহায় করে তুলেন এই ব্যাটসম্যান। তবে সপ্তম ওভারে প্রথম সফলতা লাভ করে ওয়েষ্ট ইন্ডিজ। স্যামুয়েল বদ্রির বলে লেগ বিফোর হয়ে প্যাভিলিয়নে ফিরে আসেন রোহিত শর্মা। আউট হবার আগে ৩১ বলে ৪৩ রান করেন রোহিত। এরপর কোহলির সাথে ৬৬ রানের জুটি পড়ে ভারতের স্কোরটাকে বাড়াতে থাকেন রাহানে।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2017-2019 AmarSurma.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: