মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ০৯:০৮ অপরাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
প্রতিনিধি আবশ্যক, অনলাইন পত্রিকা আমার সুরমা ডটকমের জন্য প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন : ০১৭১৮-৬৮১২৮১, ০১৬২৫-৬২৭৬৪৩
যুক্তরাজ্যে ট্রাম্পের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা চান টিউলিপ

যুক্তরাজ্যে ট্রাম্পের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা চান টিউলিপ

tu-300x180আমার সুরমা ডটকম ডেক্স : মুসলিমবিদ্বেষী মন্তব্য করায় যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রিপাবলিকান দলের মনোনয়নপ্রত্যাশী ডোনাল্ড ট্রাম্পের যুক্তরাজ্যে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা চেয়েছেন লেবার পার্টির বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত এমপি টিউলিপ সিদ্দিকী। তবে তার প্রস্তাবে সমর্থন না দিয়ে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন ট্রাম্পের বক্তব্যের বিরুদ্ধে যুক্তরাজ্যের সব দল ও মতের ঐক্যের প্রতি জোর দিয়েছেন। বিবিসি জানিয়েছে, ‘লন্ডনের মুসলিম অধ্যুষিত কিছু অঞ্চলে একেবারেই যাওয়া যায় না’-ট্রাম্পের এমন মন্তব্যের বিষয়ে গত সপ্তাহে পার্লামেন্টে প্রধানমন্ত্রী ক্যামেরনের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বক্তব্য দেন টিউলিপ। যুক্তরাষ্ট্রের এই ধনকুবেরের যুক্তরাজ্যে প্রবেশে ‘নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা যায় কি না’ তা জানতে চেয়ে প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য তিনি বলেন, “জনস্বার্থে ক্ষতিকর এমন ব্যক্তিদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারির বিধান রয়েছে আমাদের। তা সবার জন্য সমান হোক, এমনটা নিশ্চয় প্রধানমন্ত্রীও চাইবেন। নাকি কোটিপতিদের ক্ষেত্রে এর ব্যতিক্রম হবে?” নিজের সংসদীয় আসনে ইহুদিদের ৭টি উপাসনালয়, চারটি মসজিদ, দুটি মন্দির এবং ৩৫টির বেশি গির্জা রয়েছে বলে জানান টিউলিপ। মুসলমানদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ করতে না দেওয়ার দাবি তুলে ট্রাম্প যে ‘উগ্রবাদী আচরণ’ করেছেন, সেজন্য তার ক্ষেত্রেও যুক্তরাজ্যের আইন প্রয়োগের দাবি জানান টিউলিপ। গত মে মাসে অনুষ্ঠিত সাধারণ নির্বাচনে হ্যাম্পস্টেড অ্যান্ড কিলবার্ন আসন থেকে লেবার পার্টির টিকেটে জয়ী হয়ে ব্রিটিশ পার্লামেন্টে আসেন টিউলিপ। বুধবার টিউলিপের বক্তব্যের জবাবে ডেভিড ক্যামেরন জানান, তার বক্তব্যের মূল ভাষ্যের সঙ্গে একমত হলেও ট্রাম্পের যুক্তরাজ্যে প্রবেশে তিনি বাধা দিতে চান না। “বরং এ সুযোগে আমরা দেখাতে পারি, তার কথার বিরুদ্ধে যুক্তরাজ্যবাসী একমত,” বলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী। ক্যামেরন যুক্তরাজ্যকে ‘বহু-জাতি ও বহু-বিশ্বাসের সমন্বয়ে গঠিত একটি সফল দেশ’ হিসেবে অভিহিত করে বলেন, “উগ্রবাদী কিংবা তাদের ধ্যানধারণাকে ঠেকানোর পাশাপাশি বৈষম্যের বিরুদ্ধে আরও অনেক কিছু করার সুযোগ আমাদের আছে।” ট্রাম্পের বক্তব্যকে ‘বিভেদ সৃষ্টিকারী’, ‘মূর্খতা’ ও ‘ভুল’ বলেও অভিহিত করেন ক্যামেরন। এদিকে ট্রাম্পের যুক্তরাজ্যে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা চেয়ে যুক্তরাজ্যের পার্লামেন্টে করা একটি অনলাইন জরিপে এরই মধ্যে ৫ লাখ স্বাক্ষর পড়েছে বলে লন্ডনভিত্তিক সাপ্তাহিক পত্রিকা ‘হ্যাম অ্যান্ড হাই’ জানিয়েছে।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2017-2019 AmarSurma.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: