মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ০৪:৩৫ অপরাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
প্রতিনিধি আবশ্যক, অনলাইন পত্রিকা আমার সুরমা ডটকমের জন্য প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন : ০১৭১৮-৬৮১২৮১, ০১৬২৫-৬২৭৬৪৩
যে ৭টি খাবার পেটের মেদ কমাতে সাহায্য করবে

যে ৭টি খাবার পেটের মেদ কমাতে সাহায্য করবে

helthআমার সুরমা ডটকম : পেটের মেদ নিয়ে চিন্তার শেষ নেই। খাওয়ার দাওয়ার অনিয়ম, দীর্ঘসময় বসে বসে কাজ করা, জাংক ফুড খাওয়া মূলত পেটে মেদ জমার মূল কারণ। যত দ্রুত পেটে মেদ জমে তত দ্রুত মেদ ঝেড়ে ফেলা সম্ভব হয় না। ডায়েট করে ওজন কমানো গেলেও পেটের মেদ সহজে কমতে চায় না। আবার ব্যায়াম করার মত সময় অনেকের হয়ে উঠে না। কিছু খাবার আছে যা আপনার পেটের মেদ কমাতে সাহায্য করে থাকবে। পুষ্টিবিদ আনিকা শাহ্‌জাবিন প্রিয়.কম কে এমনি কিছু খাবারের কথা বলেছেন যা পেটের মেদ কমাতে সাহায্য করবে।
আপেল : আপেল একটি আঁশ যুক্ত ফল। এতে ফ্ল্যাভোনয়েড, বিটা ক্যারোটিন, পটাশিয়াম, ভিটামিন আছে যা আপনার ওজন কমাতে সাহায্য করে থাকে। আপেল পেটে অনেকক্ষণ স্থায়ী হয়ে থাকে যা ঘন ঘন খাওয়া প্রতিরোধ করে থাকে। প্রতিদিন একটি করে আপেল খেলে আপনার পেটের মেদ কমে যাবে দ্রুত।
তরমুজ : তরমুজে হল ভিটামিন এ,সি, অ্যামনিউ এসিড সমৃদ্ধ একটি ফল। এতে পানির ভাগ বেশি থাকে, ফ্যাটের পরিমাণ অনেক কম। এটিও আপনার পেটের চর্বি কমাতে সাহায্য করবে।
টমেটো : টমেটো শরীরের অতিরিক্ত পানি, সোডিয়াম বের করে দেয়। যা পেটের মেদ কমিয়ে পেট সমান করে থাকে।
মাশরুম : পেটের মেদ কমাতে মাশরুমের জুড়ি নেই। মাশরুম আপনার ক্ষুধা নিবারণ করে পাকস্থলি পরিপূর্ণ করে থাকে। যার কারণে আপনার অনেকক্ষণ ক্ষুধাবোধ অনুভূত হয় না।
ওটস : পেটের চর্বি কমায় এমন একটি খাবার হল ওটস! প্রতিদিনের সকালের নাস্তা ওটস দিয়ে শুরু করুন এবং দেখুন জাদু। ওটস উচ্চ আঁশ যুক্ত খাবার যা পেটের মেদ কমিয়ে ক্ষুধা লাগার প্রবণতা কমিয়ে থাকে।
কলা : কলাতে প্রচুর পরিমাণে এনজাইম আছে যা হজমশক্তি বাড়িয়ে তোলে। এবং তার সাথে সাথে ওজন কমাতে সাহায্য করে থাকে। প্রতিদিন একটি করে কলা খাওয়ার অভ্যাস আপনাকে প্রায় ১২টি স্বাস্থ্য সমস্যা থেকে মুক্তি দিবে।
শসা : শসা একটি নিম্ন ক্যালরিযুক্ত খাবার। ১০০ গ্রাম শসায় শতকরা ৯৬ ভাগ পানি আর মাত্র ৪৫ ভাগ ক্যালরি আছে। প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় শসা রাখুন। এটি দেহের ক্ষতিকর টক্সিন দূর করে ওজন কমিয়ে থাকে। এটি ত্বক সুস্থ রাখতেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে।

পরামর্শদাতা
আনিকা শাহ্জাবিন
খাদ্য ও পুষ্টি বিজ্ঞান বিভাগ
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2017-2019 AmarSurma.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: