বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১১:৫৪ অপরাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
প্রতিনিধি আবশ্যক, অনলাইন পত্রিকা আমার সুরমা ডটকমের জন্য প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন : ০১৭১৮-৬৮১২৮১, ০১৬২৫-৬২৭৬৪৩
সংবাদ শিরোনাম :
এইচএসসির ফল প্রকাশ, পাসের হার ৮৫.৯৫ শতাংশ নিহতের সংখ্যা ৫০০০ ছাড়ালো, তিন মাসের জরুরি অবস্থা জারি তুরস্কে রাজাকার ও বিএনপির লোকদের নিয়ে সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের শোকর‌্যালি পাকিস্তানের সাবেক সামরিক শাসক পারভেজ মোশাররফের মৃত্যু চট্টগ্রাম কলেজের ১৭৫ শিক্ষার্থী ৩ ঘন্টার অভিযানে ডুবোচর থেকে উদ্ধার ফরিদপুরে একই পরিবারে ৫ সদস্যের ইসলাম ধর্ম গ্রহণ কে হচ্ছেন রাষ্ট্রপতি জানা যাবে মঙ্গলবার বিশ্ব হাত গুটিয়ে বসে থাকলে আরেকটি রোহিঙ্গা গণহত্যা হবে: জাতিসঙ্ঘ ১০ দফা আদায়ে ব্যর্থ হলে বাংলাদেশ ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত হবে: মির্জা ফখরুল বহিষ্কৃত নেতার সমাবেশে জেলা সভাপতি: উজ্জীবিত নেতাকর্মীরা
জঙ্গি ঠেকাতে এক লাখ আলেমের স্বাক্ষরে ‘ফতোয়া’

জঙ্গি ঠেকাতে এক লাখ আলেমের স্বাক্ষরে ‘ফতোয়া’

images_108367আমার সুরমা ডটকম : বাংলাদেশের এক লাখ ইমাম, ওলামা-মাশায়েখ একযোগে ফতোয়া দেবেন যে, ‘জঙ্গিবাদ ইসলাম ধর্ম পরিপন্থী। জঙ্গিরা পথ ভ্রষ্ট। তাদের মদদদাতারা বিদেশি, বিধর্মী এবং ইসলাম ধর্মের প্রকাশ্য শত্রু। ইসলামে জঙ্গিবাদের কোন স্থান নেই। এছাড়া পবিত্র কুরআন, হাদিস এবং হযরত মুহাম্মদ (সা.) এর জীবনীর আলোকে তারা জঙ্গিবাদ বিরোধী পুস্তক প্রণয়ন করবেন। যা সারাদেশে মসজিদ, মাদ্রাসা ও ওয়াজ-মাহফিলে তুলে ধরা হবে।
পুলিশের ইন্সপেক্টর জেনারেল এ কে এম শহীদুল হক’র সভাপতিত্বে আজ বৃহস্পতিবার পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত “ইসলামের দৃষ্টিতে জঙ্গিবাদ: বাংলাদেশ প্রেক্ষিত” শীর্ষক এক মতবিনিময় সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়। এসময় ইসলাম ধর্মের কথা বলে যারা জঙ্গিবাদ করছে-তাদেরকে একযোগে রুখে দাঁড়ানোর প্রত্যয়ও ব্যক্ত করেছেন সভায় অংশগ্রহণকারী আলেম ওলামাগণ।
মতবিনিময় সভায় পুলিশ হেডকোর্টার্সের এআইজি (গোপনীয়) মো. মনিরুজ্জামান, অতিরিক্ত আইজিপি (এইচআরএম) মো. মঈনুর রহমান চৌধুরী, অতিরিক্ত আইজিপি (অর্থ) মো. আবুল কাশেম, ডিএমপি কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়াসহ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ, মাওলানা রুহুল আমীন খান উজানী, মাওলানা দেলোয়ার হুসাইন সাইফী, মাওলানা যাকারিয়া নো’মান ফয়েজী, মাওলানা আইয়ূব আনসারী, মাওলানা যাইনুল আবেদীন, মাওলানা হাবীবুর রহমান খান, মাওলানা শোআইব আহমদ, মাওলানা নাসীরুদ্দীন কাসেমী, মাওলানা সদরুদ্দীন মাকনুন, মাওলানা আব্দুল হক প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।
এ কে এম শহীদুল হক বলেন, জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। আলেম ওলামা মাশায়েখগণই বিভ্রান্তির হাত থেকে তরুণদেরকে সুপথে পরিচালিত করতে পারেন। যারা বিপথগামী হয়েছে তাদের বিভ্রান্তি দূর করতে পারেন। আর বিভ্রান্ত করার জন্য যারা প্ররোচিত করছে ইসলামের প্রকৃত মর্মবাণী তুলে ধরে তাদের প্ররোচণা প্রতিহত করতে পারেন। তিনি বলেন, আমরা আপনাদেরকে নিয়ে জঙ্গিবাদকে দেশ থেকে নির্মূল করতে সক্ষম হবো। মতাদর্শের পার্থক্যের কারণে একজন মুসলমান আরেকজন মুসলমানকে নাস্তিক, মুরতাদ বলতে পারে না। হত্যা করতে, বোমা মারতে বা গুলি করতে পারে না। তিনি আরও বলেন, এদেশে এক সময় চরমপন্থী, সর্বহারা, নকশাল আন্দোলন হয়েছিল। বহু তরুণের মগজ ধোলাই হয়েছিল, হত্যা করা হয়েছিল। কিন্তু তারা সফল হয়নি। পরে তারা শান্তির পথে ফিরে এসেছে। তিনি বলেন, ইসলাম ধর্ম নিয়ে একেকজন একেক ধরনের কথা বললে মানুষ বিভ্রান্ত হবে। ইসলামের ব্যাখ্যা একই রকম হতে হবে। তিনি বলেন, শহীদ হবার লোভে যে সব যুবক সন্ত্রাসে লিপ্ত হচ্ছে তাদেরকে সঠিক পথে আনতে হবে। তারা যেন বিপথে না যায় সে ব্যবস্থা নিতে হবে। আইএস প্রসঙ্গে আইজিপি বলেন, আন্তর্জাতিক রাজনীতির ফসল হচ্ছে আইএস। ব্লগার হত্যা প্রসঙ্গে আইজিপি বলেন, কোনো ব্যক্তি কারো ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করলে আমরা তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবো। সেজন্য কাউকে হত্যা করা উচিত নয়। তিনি বলেন, আমরা কোনো মসজিদ-মাদ্রাসায় খবরদারি করি না, গোয়েন্দা দিতেও চাই না। তিনি মসজিদে জুমার খুতবার পূর্বে বয়ানে, ওয়াজ-মাহফিলে জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে কথা বলার জন্য আলেম-ওলামাদের প্রতি আহবান জানান। পুলিশ প্রধান বলেন, জেহাদের নামে মসজিদে নিরীহ মানুষ হত্যা করা ইসলাম সমর্থন করে না। ইসলাম দেশপ্রেমের শিক্ষা দেয়। গুটি কয়েক লোক ধর্মের ভুল ব্যাখ্যা দিয়ে দেশে অশান্তি সৃষ্টি করছে, জঙ্গিবাদ সৃষ্টি করছে। এটা কোন মুসলমানের কাজ হতে পারে না।
স্পেশাল ব্রাঞ্চের অতিরিক্ত আইজিপি ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বলেন, আলেমরা ধর্মের সঠিক ব্যাখ্যা দিয়ে মানুষকে জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে সজাগ করতে পারেন।
অতিরিক্ত আইজিপি (এ্যাডমিন এন্ড অপস্) মো. মোখলেসুর রহমান বলেন, মুসলমানদেরকে নিয়ে নানা চক্রান্ত চলছে। মুসলমানের নামে মুসলমানদেরকে হত্যা করে ইসলামের ভাবমর্যাদা ধ্বংস করার চেষ্টা করা হচ্ছে। ঐক্যবদ্ধভাবে এ চক্রান্ত জঙ্গিবাদ মোকাবেলা করতে হবে।
মাওলানা ফরিদ উদ্দিন মাসউদ বলেন, যারা ইসলামের নামে জঙ্গি তৎপরতা চালাচ্ছে তারা ইসলামের দূশমন, মুসলমানদের দূশমন। তারা ইসলামের যে ক্ষতি করছে তা আবু জাহেলও করতে পারেনি। তারা বিকৃত চেতনার মানুষ। জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে আলেমদের সোচ্চার হওয়ার আহবান জানিয়ে তিনি বলেন, এখন চুপ করে থাকার সময় নেই। জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে কথা বলা ইমানি দায়িত্ব। নিজেদের আত্মরক্ষার জন্যও প্রয়োজন। নইলে তারা হুরপরি পাওয়ার জন্য আপনাদের গলায়ও ছুরি ধরতে পারে। তিনি বলেন, ওলামা-মাশায়েখদের বয়ান ও ওয়াজ মাহফিলে জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে কথা বলতে হবে। মাওলানা মাসউদ বলেন, সারা দেশে প্রায় তিন লাখ ইমাম আছেন। আরো তিন লাখ মুয়াজ্জিন আছেন। জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে এক লাখ ইমামের স্বাক্ষর সম্বলিত একটি ফতোয়া বের করে তা আন্তর্জাতিক পর্যায়ে ছড়িয়ে দিতে হবে। তিনি এ বিষয়ে পুলিশ প্রশাসনের সহযোগিতা কামনা করেন। বিজ্ঞপ্তি

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2017-2019 AmarSurma.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: